চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২১

admin

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণের জন্য ১২টি স্থান নির্ধারণ করে দিয়েছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন

প্রকাশ: ২০১৭-০৯-১৭ ১৫:১৫:৪৮ || আপডেট: ২০১৭-০৯-১৭ ১৫:১৫:৪৮

বীর কন্ঠ ডেস্ক: মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণের জন্য ১২টি স্থান নির্ধারণ করে দিয়েছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন। এই ১২টি স্থানের বাইরে ব্যক্তি পর্যায়েও ত্রাণ দেওয়া যাবে না বলে  জানিয়েছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলাপ্রশাসক (শিক্ষা এবং আইসিটি) মাহিদুর রহমান। তিনি বলেন, ‘এই স্পট নির্ধারণের কারণে একদিনের মধ্যেই ত্রাণ বিতরণে অনেক শৃঙ্খলা ফিরে এসেছে।’যে সব স্থানে ত্রাণ দেওয়া হবে

উখিয়া ও টেকনাফের মোট ১২টি জায়গায় ত্রাণ বিতরণ করা যাবে। এর মধ্যে কুতুপালং অস্থায়ী ক্যাম্প ১ ও ২, বালুখালী অস্থায়ী ক্যাম্প ১ ও ২, ময়নাগুনা, হাকিমপাড়া, থাইনখালীতে একটি করে স্পটে ত্রাণ বিতরণ করা হবে।

 

টেকনাফে মোট ৫টি ত্রাণ স্পট নির্ধারণ করা হয়েছে। এগুলো হলো—টেকনাফ পৌরসভা ও সদর মিলিয়ে একটি, বাহারছড়া, শাহপরীর দ্বীপ, নয়াপড়া, হোয়াইক্যং এলাকায় একটি করে স্থান।

 

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলাপ্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মাহিদুর রহমান বলেন, ‘রোহিঙ্গারা ক্যাম্পে থাকবে। সেখানে গিয়ে ত্রাণ দেওয়া হবে। কে কখন কোথায় ত্রাণ দিচ্ছেন, তা  নজরদারিতে আনতেই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’

 

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২৪ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির সেনা বাহিনীর ২৯টি চৌকিতে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে সেনাবাহিনী রাখাইন রাজ্যে অভিযান শুরু করে। ওই সময় থেকে এই পর্যন্ত চার লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে এসে কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের ক্যাম্পসহ বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়েছে।

 

সূত্র- বাংলা ট্রিবিউনকে

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *