চট্টগ্রাম, , রোববার, ২৩ জুন ২০২৪

Alauddin Lohagara

লামা উন্নয়ন ও জেলা বাস্তবায়ন কমিটি পূন:গঠিত-১৯ দফা দাবী

প্রকাশ: ২০১৮-০১-০২ ১৭:৩৯:১৮ || আপডেট: ২০১৮-০১-০২ ১৭:৩৯:১৮

 

বেলাল আহমদ,বিশেষ প্রতিনিধি :

বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলার সাবেক লামা মহকুমাকে প্রশাসনিক জেলায় উন্নীত ও ১৯ দফা দাবী বাস্তবায়ন করার জন্য লামা উন্নয়ন ও জেলা বাস্তবায়ন কমিটি পূন:গঠিত হয়েছে। ২ জানুয়ারি লামা প্রেসক্লাবের মিডিয়া সেন্টারে এক সভায় উক্ত কমিটি পূন:গঠিত হয়। সভায় মানবাধিকার কর্মি রুহুল আমিনকে সভাপতি ও সাংবাদিক মো:কামরুজ্জমানকে মহাসচিব করে ১০১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠিত হয়।

কমিটির সহ-সভাপতিগন হচ্ছেন, এডভোকেট মামুন মিয়া, এডভোকেট, মৃদুল কান্তি বড়ুয়া, ড. অজয় কুমার দত্ত, বীরমুক্তিযোদ্ধা আবদুল আজিজ, বীরমুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক প্রিয়দর্শী বড়ুয়া, ডা: সিরাজুল ইসলাম, মো: তাজুল ইসলাম, এডভোকেট মো: এমদাদ উল্ল্যাহ, অধ্যাপক আরিফ চৌধুরী, অধ্যাপক মহিব উল্ল্যা, এডভোকেট মতিউর রহমান, মো: অলিউল্লা, বিজয় আইচ। যুগ্ন মহাসচিব হচ্ছেন; মো: রফিকুল ইসলাম, মো: ইউছুপ মজুমদার, মো: জাপান বড়ুয়া, থুইনিমং মার্মা। সাংগঠনিক সম্পাদক হচ্ছেন; মো: ফরিদ উদ্দিন, আনোয়ার হোসেন সোহেল, মো: শাহিন আলম। আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট সাদেকুল মাওলা ধ্রুব (ইরাক), অর্থ সম্পাদক-মো: শাহিন,  তথ্য ও প্রচার সম্পাদক- সাইফুল ইসলাম সোহেল, সমাজ সেবা সম্পাদক-মো: শাহজাহান, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক- জাহানারা আরজু, দপ্তর সম্পাদক,- এম বশিরুল আলম, আপ্যায়ন সম্পাদক-মো: হারুন, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি সম্পাদক- বাবু মং মার্মা।

 

কমিটির প্রধান পৃষ্টপোষক ও উপদেষ্ঠা হিসেবে রয়েছেন, আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইসমাইল, সভাপতি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান লামা, থোয়াইনু অং চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক বিএনপি ও উপজেলা চেয়ারম্যান লামা, জহিরুল ইসলাম- মেয়র লামা পৌরসভা, মোস্তফা জামাল সদস্য জেলা পরিষদ, ফাতেমা পারুল, সদস্য জেলা পরিষদ, আবু তাহের, ভাইস চেয়ারম্যান লামা উপজেলা, শরাবান তহুরা, ভাইস চেয়ারম্যান লামা ও  লামা-আলীকদম- নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সকল ইউপি চেয়ারম্যান, হেডম্যান, সভাপতি লামা আইনজীবি সমিতি, সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক আওয়ামীলীগ ও বিএনপি।

 

উক্ত কমিটির নিম্মোক্ত ১৯ দফা দাবী নিয়ে কাজ করবেন বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ঘোষণা দেন। দফা সমুহ হচ্ছে: ০১। বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলার সাবেক লামা মহকুমাকে প্রশাসনিক জেলা ঘোষণা ও বাস্তবায়নসহ ২।  মাতামুহুরী নদীর গতি পরিবর্তন ও লামা শহর রক্ষা বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ নির্মাণ। ৩। লামা মাতামুহুরী কলেজে অনার্স মার্ষ্টাস কোর্স চালুসহ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে  উন্নীত করণ। ৪।  লামায় একটি আবাসিক মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠা ও চালু করণ। ৫। সাবেক লামা মহকুমা সদরে সিনিয়র সহকারী জজ কোর্ট প্রতিষ্ঠা ও চালু করণ। ৬। লামায় একটি কারাগার নির্মাণ করণ। ৭। লামা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক সংকট নিরষণ করণ। ৮। লামা সরকারি হাসাপাতাল ৫০ শর্য্যা চাল করণ ও ১০০ শয্যা উন্নীত করণসহ ডাক্তার, জনবল সংকট নিরষণ করা। ৯। লামাকে জেলায় উন্নীত করে নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারী ও লামার গজালিয়কে উপজেলায় উন্নীত করণ। ১০। লামাকে জেলায় উন্নীত করে সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা ও জান-মালের নিরপত্তার স্বার্থে লামা উপজেলার আজিজনগর, বনপুর, সরই, আলীকদমের করুকপাতাঝিরি এলাকায় একটি করে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র/থানা প্রতিষ্ঠাসহ লুলাইন, কালোবড়পাড়া, পোপা, সাপেরগাড়া এলাকায় নিরাপত্তা বাহিনী; বিজিবি, আরম্স পুলিশ ও আনসার ক্যাম্প স্থাপন করণ। ১১। লামা উপজেলা পরিষদ ভবন, আবাসিক  সরকারি কোয়াটার নির্মাণ করণ। ১২। লামা আদালত ভবন নির্মাণ করণ। ১৩। লামার মিরিঞ্জা পর্যটন কেন্দ্র’র উন্নয়নসহ ট্যুরিজম পুলিশের ক্যাম্প স্থাপন করণ। ১৪। লামা উপজেলার কুমারী ও সরই এলাকায় প্রাকৃতিক রাবার শিল্প এলাকা প্রতিষ্ঠা করে এতদসংক্রান্ত অর্থনৈতিক জোন সৃষ্টি করণ। ১৫। লামা উপজেলায় উৎপাদিত কৃষিপণ্য সংরক্ষণের জন্য একটি হীমাগার স্থাপন করা। ১৬। সাবেক লামা মহকুমায় প্রাপ্ত প্রাকৃতিক খনিজ সম্পদ আহরণ ও উত্তোলন করে দেশের চাহিদা পূরণ ও বৈদেশিক মুদ্রা আয় করণ। ১৭। সাবেক লামা মহকুমার, বন, নদী-খাল, ঝিরি-প্রাকৃতিক পরিবেশ সংরক্ষণ ও উন্নয়নে সরকারের প্রদক্ষেপ গ্রহন। ১৮। লামা সদরে একটি কারিগরী স্কুল এন্ড কলেজ প্রতিষ্ঠাসহ উপজাতীয় আবাসিক হোষ্টেল চালু ও শিক্ষক প্রশিক্ষণ ইনিষ্টিটিউট স্থাপন ১৯। সাবেক লামা মহকুমাকে দূর্নীতিমুক্ত করণের মাধ্যমে সরকারি উন্নয়ন কার্যক্রমের সু-ফল জনগোষ্ঠির মাঝে পৌঁছে দেয়া।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রামের সাবেক লামা মহকুমাকে প্রশাসনিক জেলায় রুপান্তরের জন্য জাতি, ধর্ম, বর্ণ, গোত্র, দল, মত নির্বিশেষে সকল মহলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় জেলায় উন্নীত করণের লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার; বাস্তবায়নে জাতির জনক কণ্যা প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পার্বত্য বিষয়ক প্রতি মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপির আশু হস্তক্ষেপ কামণা করেছেন নেতৃবৃন্দরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *