চট্টগ্রাম, , সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪

Alauddin Lohagara

জননেত্রী শেখ হাসিনা তারকা খেলোয়াড় তৈরীতে মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ করছে: ফজলুল করিম সাঈদী

প্রকাশ: ২০১৮-০১-০৭ ২২:৪০:৫২ || আপডেট: ২০১৮-০১-০৭ ২২:৪২:০১

মিজবাউল হক চকরিয়া :

চকরিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্যোগে আন্তঃ শ্রেণি ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা ৭ জানুয়ারী বিকালে বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে। টুর্নামেন্টে মাতামুহুরী দলকে হারিয়ে কর্ণফুলী দল চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

খেলা শেষে অনুষ্টিত হয় পুরস্কার ও সনদ বিতরণী অনুষ্ঠান।চকরিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জিএম এনামুল হকের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চকরিয়া উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার জেলা ফুটবল ফেডারেশনের (ডিএফএ) সভাপতি এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব ফজলুল করিম সাঈদী।

বিদ্যালয়ের শিক্ষক জসিম উদ্দিনের সঞ্চালনায় পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ বান্দরবান জেলার ডেপুটি জেলা ইউনিট কমান্ডার ও শিক্ষার্থী অভিভাবক মুক্তিযোদ্ধা ফরিদুল আলম, মুক্তিযোদ্ধা ও শিক্ষানুরাগী আবু তাহের, পৌরসভার দুই নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুহেনা মোস্তাফা কামাল, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আলহাজ নুরুল আবছার বাদশা, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য সাজ্জাদুল ইসলাম, চকরিয়া পৌরসভা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক আবু ইউছুপ জয়।

অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক, শিক্ষার্থী, সুধীজন ও দুই দলের খেলোয়াড় এবং কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ফজলুল করিম সাঈদী বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বে বর্তমান সরকার সারাদেশে ক্রীড়াঙ্গনকে বিকশিত করতে কাজ করছেন। প্রতিটি উপজেলায় সরকার ইতোমধ্যে একটি করে মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ কাজ শুরু করেছে। যাতে প্রতিটি জনপদের নানা বয়সের মানুষ খেলাধুলার মাধ্যমে রপ্ত থাকতে পারে। খেলাধুলা এমনকি একটি জিনিস যার মাধ্যমে প্রতিটি খেলোয়াড় নিজেকে দক্ষ করে তুলতে পারে।

 

আবার খেলাধুলায় মক্ত থাকলে যে কোন মানুষ মাদকসহ সব ধরণের অপরাধ থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারে। তাই আমাদেরকে প্রতিটি এলাকা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে খেলাধুলার চর্চা আরো বাড়াতে হবে। তিনি বলেন, সরকার প্রধান শেখ হাসিনা একজন ক্রীড়াপ্রেমী মানুষ। তার অনুপ্রেরণায় আজ দেশের তারকা খেলোয়াড়রা অসাধারণ নৈপুণ্য প্রদর্শন করে বিশ্বদরবারে বাংলাদেশের সুনাম ও মর্যাদা অনন্য স্থানে নিয়ে গেছে। তাই ছোট ছোট এ ধরণের টুর্নামেন্ট আয়োজন করে আমাদের তারকা খেলোয়াড় তৈরী করতে হবে। যাদের কল্যাণে ভবিষ্যতে গর্বিত হবে বাংলাদেশ।

 

প্রধান অতিথি আরো বলেন, ক্রীড়াঙ্গনের ধারাবাহিক উন্নতি দেখে জননেত্রী শেখ হাসিনা নতুন প্রজন্মকে উজ্জেবিত করতে দেশব্যাপী সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বঙ্গমাতা-বঙ্গবন্ধু টুর্নামেন্ট প্রবর্তন করেছে। কারণ তাঁর লক্ষ্য হচ্ছে, লেখাপড়ার পাশাপাশি শিক্ষার্থীরা এসব ক্ষুদ্র টুর্নামেন্টে অংশ নিয়ে একদিন দেশসেরা হবে। ইতোমধ্যে পেকুয়া উপজেলার দুইটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা বঙ্গমাতা-বঙ্গবন্ধু টুর্নামেন্টে অংশ নিয়ে দেশসেরা হয়েছেন। এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত গৌরবের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *