চট্টগ্রাম, , বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২

Alauddin Lohagara

বাংলাদেশ বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে:  আ জ ম নাছির

প্রকাশ: ২০১৮-০২-২৮ ২৩:০১:৫২ || আপডেট: ২০১৮-০২-২৮ ২৩:০১:৫২

বীর কণ্ঠ ডেস্ক :

একাত্তরের পরাজিত শক্তির প্রেতাত্মা এখনো জাতিসত্তাকে ছোবল দিচ্ছে উল্লেখ করে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, তাদের ষড়যন্ত্রের জাল লন্ডন থেকে পরিচালিত হচ্ছে। ষড়যন্ত্রের খলনায়ক দুর্নীতির বরপুত্র, সাজাপ্রাপ্ত তারেক জিয়া।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় নগরীর ডিসি হিলের নজরুল স্কয়ার মঞ্চে একুশ মেলা পরিষদ আয়োজিত নয় দিনব্যপী বইমেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন মেয়র।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। ১২টি মানবিক সূচকে বাংলাদেশ প্রতিবেশী দেশের চেয়ে এগিয়ে। এ অর্জনকে ধরে রাখতে আগামী নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির অলোকবর্তিকা শেখ হাসিনাকে আবার ক্ষমতাসীন করতে হবে।

 

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের আয়োজনে আগামী বছর ১ ফেব্রুয়ারি থেকে মাসব্যাপী বই মেলা করার ব্যাপারে আমার পরিকল্পনা রয়েছে। এ লক্ষ্যে আমাদের সংশ্লিষ্ট লেখক, প্রকাশক, সংস্কৃতিকর্মী এবং চট্টগ্রামে অপরাপর বইমেলা আয়োজকদেরও সমন্বিত করে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তবে মানসম্মত ভালো বই বের করার জন্য লেখকদের লেখার প্রতি এবং তা প্রকাশনার ব্যাপারে আমাদের প্রকাশকদের আন্তরিক ভূমিকা পালন করতে হবে। পাশাপাশি নতুন পাঠক প্রজন্ম গড়ে তোলার জন্য আমাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।

 

সভাপতির বক্তব্যে একুশে মেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ কারও করুণার পাত্র নয়। এখন দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার উদীয়মান ব্যাঘ্র। একদিন যারা আমাদের তলাবিহীন ঝুড়ি আখ্যায়িত করেছিল তার এখন আমাদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ।

 

তিনি বলেন, আমরা কেউ সমালোচনা ঊর্ধ্বে নই। তবে আক্রমণাত্মক সমালোচনা নেতিবাচক। এর উদ্দেশ্য হলো দেশকে পিছিয়ে দেওয়া। তাই এর বিরুদ্ধে আমাদের সচেতন হতে হবে।

 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড. শিরিন আকতার বলেন, বর্তমান সরকার জনকল্যাণমুখী। আজ কেউ গরিব নয়। বাংলাদেশ এখন নিম্নমধ্য আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। শেখ হাসিনার মিশন-ভিশন অনুযায়ী বাংলাদেশ উন্নত দেশে উন্নীত হতে চলছে। এ অগ্রযাত্রা কেউ থামাতে পারবে না।

স্বাগত বক্তব্যে একুশ মেলা পরিষদের মহাসচিব নিয়াজ মোর্শেদ এলিট বলেন, অনেক প্রতিকূলতা ডিঙ্গিয়ে একুশের বইমেলা সম্পন্ন হলো। তারপর এই আয়োজনে যারা পূর্ণতা দিয়েছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।

একুশের স্মারক সম্মাননা পদকপ্রাপ্ত দৈনিক পূর্বকোণ’র সম্পাদক মো. ইউসুফ চৌধুরীর (মরণোত্তর) সন্তান ডা. ম. রমিজ উদ্দিন নিজের অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, মহান একুশের নামে সম্মাননা পেয়ে আমরা ধন্য।

বাচিক শিল্পী আয়েশা হক শিমুর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ‍ছিলেন মেলা পরিষদের কো-চেয়ারম্যান ও নগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন একুশ মেলা পরিষদের যুগ্ম মহাসচিব খোরশেদ আলম।

উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সুনীল সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, সিইউজের সাবেক সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, সংস্কৃতিকর্মী শওকত আলী সেলিম, নজরুল মোস্তাফিজ, মহিউদ্দিন মঈনুল আলম, সুমন দেবনাথ প্রমুখ।

 

এবার একুশে সম্মাননা স্মারক দেওয়া হয়েছে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম দৈনিক আজাদী সম্পাদক এমএ মালেক, চট্টগ্রামের আধুনিক সংবাদপত্রের পথিকৃৎ দৈনিক পূর্বকোণ’র প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ইউসুফ চৌধুরী (মরণোত্তর), দৈনিক পূর্বদেশ’র প্রতিষ্ঠাতা মাস্টার নজির আহমদ (মরণোত্তর), গৃহায়ন শিল্প বিকাশে অবদানের জন্য অধ্যাপক প্রকৌশলী মৃণাল কান্তি বড়ুয়া, নাট্যচর্চায় গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য নাট্যজন আহমদ ইকবাল হায়দার, আবৃত্তি চর্চায় গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য বাচিক শিল্পী রণজিৎ রক্ষিত, চারুকলা শিল্পচর্চায় অবদানের জন্য চারুশিল্পী দীপক কুমার দত্তকে। স্মারক তুলে দেন অতিথিরা। বাংলানিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *