চট্টগ্রাম, , রোববার, ১৪ আগস্ট ২০২২

Alauddin Lohagara

বিএনপি শুধু ধ্বংস করতে জানে সৃষ্টি করতে জানে না: খুলনার জনসভায় প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-০৩ ১৯:৪২:২১ || আপডেট: ২০১৮-০৩-০৩ ১৯:৪২:২১

বীর কণ্ঠ ডেস্ক  :

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ইঙ্গিত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দুর্নীতি করলে শাস্তি পেতেই হবে। এখানে সরকারের কিছুই করার নেই। আদালতের রায়ে উনি কারাগারে। শনিবার বিকালে খুলনা সার্কিট হাউজ মাঠে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় তিনি এ কথা বলেন। ‘উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে চাইলে নৌকায় ভোট দিতে হবে’ বলে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে চান? যদি চান নৌকা মার্কায় ভোট দিতে হবে। দুই হাত তুলে দেখান, নৌকায় ভোট দেবেন কীনা, ওয়াদা করেন।এসময় সবাই ওয়াদা করলে তিনি বলেন, ইনশাল্লাহ নৌকার জয় হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন ঠেকানোর নামে ও ক্ষমতায় যাওয়ার লোভে কত মানুষ হত্যা করেছে! সরকার উৎখাত না করে বাড়ি ফিরবেন না বলেছিলেন। তিনি তিন মাস অফিসে বসে ছিলেন। অফিসে বসে বিরানি খান আর মানুষ পোড়ানোর হুকুম দেন।

তিনি বলেন, মা-বাবা চোখের সামনে দেখে সন্তান পুড়ে মরছে। এমনকি আমি বিদ্যুৎকেন্দ্র বানাই সেখানেও আগুন দেয়। প্রায় ৫০০ মানুষ নিহত ও সাড়ে তিন হাজার মানুষ আগুনে পুড়ে আহত হয়। বিএনপি শুধু ধ্বংস করতে জানে সৃষ্টি করতে জানে না। মানুষ বাঁচাতে নয়, হত্যা করতে জানে।

শেখ হাসিনা বলেন, একটা সুখবর দিতে চাই। ভোলায় অনেক গ্যাস পাওয়া গেছে। আমরা সে গ্যাস উত্তোলন করে পাইপলাইন দিয়ে ভোলা থেকে বরিশাল ও খুলনায় নেয়ার ব্যবস্থা করে দিচ্ছি।

তিনি বলেন, আমাদের লক্ষ্য উন্নয়ন। খুলনাসহ সারাদেশে অর্থনৈতিক অঞ্চল করে দিয়েছি। চিংড়ী চাষ হয় এখানে, এজন্য চিংড়ী গবেষণাগার তৈরি করে দিয়েছি। আর বিএনপি সব কারখানা বন্ধ করে দেয়। ব্যস্ত থাকে হত্যাকাণ্ডে।

এসময় সরকারপ্রধান বিএনপি সময়ে নিহত দলীয় নেতাদের নাম উল্লেখ করেন।২০০৩ সালে খুলনায় বোমা হামলার কথাও উল্লেখ করে তিনি বলেন, খুলনা ছিল সন্ত্রাসের অভয়ারণ্য। আজকের খুলনা শান্তির নগরী।

প্রায় ১০০টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিস্থাপন শেষে তিনি বলেন, এই খুলনার সার্বিক উন্নয়নে কাজ করেছে সরকার। প্রতিটি উপজেলায় ফায়ার সার্ভিস স্টেশন করেছি। সারাদেশে বিনামূল্যে বই, বিনা পয়সায় চিকিৎসা সেবাসহ যা যা দরকার করে দিয়েছি।

শেখ হাসিনা বলেন, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প করে দিয়েছি। এর মধ্য দিয়ে নিজের ব্যবস্থা নিজে করার সুযোগ পাচ্ছে। একটা মানুষও গৃহহীন থাকবে না। জাতির পিতার আদর্শ গ্রাম বাস্তবায়ন করছি। কেউ কুড়ে ঘরে থাকবে না, নিদেনপক্ষে একটা টিনের ঘর হলেও আমরা করে দেব, সে ব্যবস্থা নিচ্ছি।

এর আগে বেলা ১১টা ১০ মিনিটে নগরীর খালিশপুরস্থ আইইবি কেন্দ্রে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) এর ৫৮তম কনভেনশনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এবং বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, আইইবির প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *