চট্টগ্রাম, , রোববার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২

admin

মোবাইলের বংশ পরিচয় ৩ মিনিটে বদলে দেয় নাছির

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-৩১ ১৭:০৪:৪৮ || আপডেট: ২০১৮-০৭-৩১ ১৭:০৪:৪৮

বীর কন্ঠ ডেস্ক :

মাত্র তিন মিনিটের ব্যবধানে মোবাইলের বংশ পরিচয় আর জন্ম তারিখ বদলে দিতে পারে নাছির উদ্দিন মাহমুদ। ডাকাতি, ছিনতাই, খুনসহ নানা অপরাধে জড়িতদের শনাক্তে মোবাইলের আইএমইআই এর সাহায্য নেয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আইএমইআই পরিবর্তন হয়ে গেলে অপরাধী শনাক্ত ও হারানো মোবাইল উদ্ধারে হিমশিম খেতে হয় এই বাহিনীকে। রিয়াজ উদ্দিন বাজারে সংঘবদ্ধ একটি চক্র এ কাজটিই করে যাচ্ছে নিয়মিত। গতকাল (সোমবার) রিজুয়ান শপিং কমপ্লেক্সের দ্বিতীয় তলার মোবাইল ভিলেজ নামে একটি দোকান থেকে নাছিরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

নাছির সাতকানিয়া উপজেলার সোনাকানিয়া গ্রামের ডিলারপাড়ার আবু সাঈদ চৌধুরীর ছেলে। মোবাইলের আইএমইআই পাল্টানোতে তিনি একজন বিশেষজ্ঞ। তার কাছ থেকে ৪৪টি বিভিন্ন ব্রান্ডের চোরাই মোবাইল সেট ও দুটি ল্যাপটপসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

নগর পুলিশের দক্ষিণ জোনের অতিরিক্ত উপ কমিশনার শাহ মোহাম্মদ আবদুর রউফ বলেন, হত্যাসহ বিভিন্ন মামলার তদন্তের স্বার্থে অপরাধীদের মোবাইল ফোনের কল রেকর্ড প্রয়োজন হয়। সেক্ষেত্রে আইএমইআই বদলে ফেলা সেটে ব্যবহারকারীর স্থান ও নম্বর শনাক্ত করতে গিয়ে সমস্যার মুখে পড়তে হয়। আইএমইআই পাল্টানো অনেক বড় অপরাধ। একটি চক্র সস্তায় চোরাই মোবাইল সেট কিনে বেশি দামে বিক্রির লোভে প্রতিনিয়ত এ অপরাধটি করে যাচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রিয়াজ উদ্দিন বাজারের মক্কা টাওয়ারের মিজান, সাতকানিয়ার দক্ষিণ ঢেমশা নাপিতের চরের বাসিন্দা জাহাঙ্গীর ওরফে বল্লা জাহাঙ্গীর, জলসা মার্কেটের সাইফুল, নালা হকার মার্কেটের খোরশেদ, স্টার টেলিকমের আবসারসহ আরো বেশ কয়েকজন রয়েছেন যারা ঢাকা এবং নগরীর বিভিন্নস্থানে চুরি হওয়া মোবাইল সেট কিনেন। এমনকি মোবাইল চোরদের কাছে তারা অগ্রিম টাকা দিয়ে থাকেন চোরাই মোবাইল নিতে। আইএমইআই পরিবর্তনের কারিগর নাছির ধরা পড়লেও রাজু কিংবা সমীরদের মতো অভিজ্ঞতা সম্পন্ন কারিগররা রয়ে গেছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

মক্কা টাওয়ারের পাশে শ্যামলী হোটেলের নিচে সমীরের একটি বিকাশের দোকান রয়েছে। আর বিকাশের দোকানের পেছনে আইএমইআই পরিবর্তনের কাজ করেন সমীর। চোরাই মোবাইল ব্যবসায়ী খোরশেদের সাথে তিনি ব্যবসায়িক অংশীদার বলে জানান রিয়াজ উদ্দিন বাজারের বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী । সমীরকে আইএমইআই পরিবর্তনের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ব্যক্তি হিসাবে বিবেচনা করে থাকে চোরাই মোবাইল ব্যবসায়ীরা।

কোতোয়ালী থানার পরিদর্শক (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বলেন, মাত্র তিন মিনিটেই মোবাইলের জন্ম ও বংশ পরিচয় বদলে দিতে পারেন নাছির উদ্দিন মাহমুদ। প্রতিটি মোবাইলেই আইএমইআই নম্বার থাকে, যাতে মোবাইলটির জন্ম ও পরিচয় বিস্তারিত থাকে। মোবাইল হারিয়ে গেলে কিংবা চুরি হলে আইএমইআই’র মাধ্যমে আমরা তা উদ্ধার করি। কিন্তু নাছিরের মতো কিছু অপরাধী সেই নম্বারই গায়েব করে দিতেন। ফলে খোয়া যাওয়া মোবাইল আর উদ্ধার করা সম্ভব হতো না। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে রিয়াজ উদ্দিন বাজার থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে নাছিরকে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে চোরাই মোবাইল সংগ্রহ করে আইএমইআই পাল্টে ফেলে রিয়াজউদ্দিন বাজারের বিভিন্ন দোকানে বিক্রি করার কথা স্বীকার করেছেন তিনি। সূত্র – দৈনিক পূর্বকোণ

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *