চট্টগ্রাম, , বুধবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২২

admin

হার্ডলাইনে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা, উত্তপ্ত উত্তরা!

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-৩১ ১৬:১৫:৫৩ || আপডেট: ২০১৮-০৭-৩১ ১৬:১৫:৫৩

বীর কন্ঠ ডেস্ক :

বাস চালকদের রেষারেষিতে সড়কে দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর বিচার দাবিতে উত্তরায় ফের বিক্ষোভ শুরু করেছে রাজধানীর বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীরা।প্রায় আড়াই ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখার পর মঙ্গলবার (৩১ জুলাই) দুপুর সাড়ে ৩টায় উত্তরায় বিক্ষোভ শুরু করে তারা।

অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস’র (এপি) ব্যুরো প্রধান জুলহাস আলম বলেন, টঙ্গী থেকে বিমানবন্দর পর্যন্ত ঢাকায় আসার পথে শত শত গাড়ি আটকে ছিল। অন্যদিকে বিমানবন্দর থেকে বের হওয়ার পথ ছিল একদম ফাঁকা। পুলিশ লাঠিচার্জ করলে শিক্ষার্থীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে গাড়ি ভাঙচুর শুরু করে। এ সময় তারা বুশরা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন জালিয়ে দেয় তারা। তবে এতে কেউ আহত হয়েছেন কি না তা জানা যায়নি।

আরেক প্রত্যক্ষদর্শী পলাশ জানান, উত্তরা ১ নম্বর সেক্টরে স্কলাস্টিকা স্কুলের সামনে অবস্থান নেওয়া শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশ কথা বলে। এরপর তারা সড়ক ছেড়ে উঠে যেতে রাজি না হলে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। তখন গাড়ি ভাঙচুর শুরু করে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।

এর আগে রাজধানীর মতিঝিল শাপলা চত্বর, সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়, মিরপুর-১০ নম্বর গোল চত্বর এবং উত্তরা জসিম উদ্দিন এভিনিউ ও এয়ারপোর্ট এর মাঝামাঝিতে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীরা।

এদিন দুপুরে নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের পদত্যাগসহ নয়টি দাবিতে মতিঝিল শাপলা চত্বরে অবস্থান নিয়ে অবরোধ করে নটরডেম স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা। এতে মতিঝিল থেকে যাত্রাবাড়ী, সায়েদাবাদ, চিটাগাং রোড পর্যন্ত যান চলাচন বন্ধ হয়ে যায়।

ফুয়াদ হাসান নামে একাদশ শ্রেণির এক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ অবস্থান নিয়ে ছিলাম। পুলিশ আমাদের বাধা দেয় সেই সময় পুলিশের সামনেই কে বা কারা আমাদের ওপর হামলা চালায়। আমাদের কয়েকজন সহপাঠী আহত হয়েছে।

তবে ডিএমপি মতিঝিল জোনের এসি মিশু বিশ্বাস বলেন, শিক্ষার্থীরা প্রায় দুই ঘণ্টা রাস্তা অবরোধ করে রেখেছিল। আমরা তাদের বুঝিয়ে পাঠিয়ে দিয়েছি।

অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের হামলায় শিক্ষার্থীদের আহত হওয়ার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, একটা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। তবে তেমন কেউ হতাহত হয়নি। মেজর কিছু না।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *