চট্টগ্রাম, , বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

admin

পার্বত্যঞ্চলে শান্তি-সার্বভৌমত্ব রক্ষায় কাজ করছে সেনাবাহিনী : প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা

প্রকাশ: ২০১৮-০৮-১৭ ২৩:৩৮:১৯ || আপডেট: ২০১৮-০৮-১৭ ২৩:৩৮:১৯

শংকর চৌধুরী,খাগড়াছড়ি :

ভারত প্রত্যাগত শরনার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সর চেয়ারম্যান (প্রতিমন্ত্রী মর্যাদা) ও সংসদ সদস্য  কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেছেন, আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে দেশের জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অসামান্য অবদান স্বীকৃত। বর্হিেিবশ্ব শান্তি বিনির্মাণ এবং আস্থা বৃদ্ধিতেও এই প্রতিষ্ঠানের দ্যুতি কম নয়। এছাড়াও সেনাবাহিনী পার্বত্যঞ্চলে শান্তি-সম্প্রীতি,সার্বভৌমত্ব রক্ষার সাথে সাথে নানা ভাবে তিন পার্বত্য জেলার প্রত্যন্ত জনপদে প্রান্তিক মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টাও অব্যাহত রেখেছে। সুধু তা নয় ‘খাগড়াছড়ি রিজিয়ন’ এর ফ্রি মেডিকেল আই অপারেশন ক্যাম্প এর মাধ্যমে জেলার ৪৮ জন রোগীকে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বিনামূল্যে অপারেশন সুবিধা ও ঔষধপত্র প্রদান করাসহ বিভিন্ন সময় যে মহত উদ্যোগ গুলো তারা গ্রহন করছে এটি এ অঞ্চলের মানুষ দৃষ্টান্ত উদাহরণ হিসেবে আজীবন মনে রাখবে। 

 

“চোখের অপারেশনে দৃষ্টি ফিরে নতুন জীবনধারা”এ শ্লোগানে বৃহস্পতিবার খাগড়াছড়ি ক্যান্টমেন্ট পাবলিক স্কুল কলেজ অডিটরিয়ামে, মহান স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ‘খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়নের’ উদ্যোগে দুই দিনব্যাপী চক্ষু শিবির উপলক্ষে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

 

জুম্ম জনতার অধিকার আদায়ের নামে পাহাড়ে অশান্তি সৃষ্টিকারি,চাঁদাবাজ,মানুষ হত্যাকারিরা এসব মানবতা,কল্যান মূলক কর্মকান্ড ও সরকারের উন্নয়ন মেনে নিতে পারছে না, মন্তব্য করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পুরনে তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তায় পিছিয়ে থাকা যে জাতি তাদের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে সরকার। পার্বত্য চট্টগ্রামের দীর্ঘদিনের যে সমস্যা তা শত বাধাবিপত্তি পেরিয়ে রাজনৈতিক সমস্যা হিসেবে চিহ্নত করে ঐতিহাসিক পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি সম্পাদনের মাধ্যমে তা সমাধান করেছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। এটি তারই সুফল উল্লেখ করে পার্বত্য চট্টগ্রামে দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সরকারের দেয়া দায়িত্ব যথাযত ভাবে পালন করে চলেছে বলেও জানান, প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।

 

মেজর মোঃ নাজমুস সালেহীন সৌরভের সঞ্চালনায়, সেনাবহিনীর খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আব্দুল মোতালেব সাজ্জাদ মাহামুদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় সাবেক সংসদ সদস্য যতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা,খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, নবাগত জেলা প্রশাসক মোঃ শহিদুল ইসলাম,পুলিশ সুপার আলী আহম্মদ খান,সিভিল সার্জন ডা: শাহ আলম,পৌরসভার মেয়র মোঃ রফিকুল আলম,চট্টগ্রাম লায়ন্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ক্যাপ্টেন (অব:) শফিক ভূইয়া,খাগড়াছড়ি সেনাবাহিনীর ৫ফিল্ড এ্যাম্বুলেন্স (এমডিএস) এর ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক লে কর্ণেল মিজানুর রহমান বক্তব্য রাখেন। এসময় সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তা,জনপ্রতিনিধি, জেলায় বিভিন্ন মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দরাসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা পার্বত্যঞ্চলে আইশৃঙ্খলা রক্ষার পাশাপাশি খাগড়াছড়ির দুর্গম ও প্রত্যন্ত অঞ্চলের দরিদ্র অসহায় মানুষের জন্য মানবিক এ মহতী উদ্যোগের জন্য সেনা কতৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান এবং আগামী দিনেও এ সমস্ত কার্যক্রম অব্যাহত রাখার আহবান জানান।

খাগড়াছড়ি রিজিয়নের জিএসও-২ (ইন্ট) মেজর মোঃ নাজমুস সালেহীন সৌরভ জানান, চলতি বছরের এপ্রিল মাস থেকে শুরু হওয়া এই মেডিকেল ক্যাম্পেইনটির আওতায় প্রথমে জোন পর্যায়ে রোগী বাছাই এবং প্রয়োজনীয় পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে ৭২জন রোগীকে চুড়ান্তভাবে নির্বাচিত করা হয়। পরবর্তীতে এসকল রোগীদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও ফ্রি ঔষধ দেওয়া হয় এবং তাদের মধ্য থেকে ৪৮জন রোগীকে অপারেশনের আওতায় আনা হয়।

উল্লেখ, চট্টগ্রাম লায়ন্স হাসপাতাল ও খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়নের ৫ ফিল্ড এ্যাম্বলেন্স’র স্বনামধন্য ও বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার (১৭ আগস্ট) দুইদিন ধরে খাগড়াছড়ি জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের চোখের রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *