চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২

সৌদিতে দ্বিগুণ হচ্ছে বাংলাদেশি গৃহকর্মীর বেতন

প্রকাশ: ২০১৮-০৮-২৬ ২৩:৫০:২৬ || আপডেট: ২০১৮-০৮-২৭ ১৩:১৬:৪৮

 

 

বীর কন্ঠ ডেস্ক :

সৌদি আরবে কর্মরত বাংলাদেশি গৃহকর্মীদের বেতন ভাতা দ্বিগুণ করতে যাচ্ছে দেশটির সরকার। বেতন দ্বিগুণ করতে দূতাবাসের মাধ্যমে সৌদি সরকারের কাছে এরই মধ্যে চিঠি পাঠানো হয়েছে। এখন সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষার পালা বলে জানিয়েছেন সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ।

শনিবার (২৫ আগস্ট) গণমাধ্যমের সঙ্গে এ বিষয় নিয়ে কথা বলেন তিনি।  রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ বলেন, বাংলাদেশি গৃহকর্মীদের সৌদিতে ন্যূনতম মাসিক বেতন ১৬ হাজার টাকা। ইতোমধ্যে তাদের বেতন দ্বিগুণ করতে দূতাবাসের মাধ্যমে সৌদি সরকারের কাছে অনুরোধ জানিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে।শিগগিরই গৃহকর্মীদের বেতন দ্বিগুণ হবে বলেও জানান রাষ্ট্রদূত।

দূতাবাস সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে সৌদি আরবে সাত লাখেরও বেশি গৃহকর্মী কর্মরত রয়েছে। তারা ন্যূনতম ১৬ হাজার টাকা বেতন পাচ্ছেন। তবে গৃহভেদে গৃহকর্মীর বেতন ৩০ হাজার টাকাও আছে। জীবনযাত্রার সার্বিক দিক বিবেচনা করে ন্যূনতম বেতন দ্বিগুণ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

এর আগে বিগত ২০১৫ সালে বাংলাদেশ থেকে গৃহকর্মী নিতে আগ্রহ প্রকাশ করে সৌদি সরকার। ফেব্রুয়ারিতে সৌদির বেসরকারি এজেন্সির সঙ্গে বাংলাদেশের সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর হয়। ফলে ৬০ হাজারেরও বেশি নারী গৃহকর্মীর জন্য সৌদি আরবের দুয়ার খুলে যায়।

চুক্তিতে উল্লেখ করা হয়, গৃহকর্মীদের সর্বোচ্চ বেতন ১২০০ রিয়াল (বাংলাদেশি টাকায় ২৬ হাজার) ও সর্বনিম্ন ১০০০ রিয়াল (২২ হাজার)। এর ব্যত্যয় হতে পারবে না। তবে নারী গৃহকর্মীদের অভিযোগ, ৮০০ রিয়ালের (১৭ হাজার) বেশি তাদের বেতন দেওয়া হয় না।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *