চট্টগ্রাম, , বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২

একজন আদর্শবাদ বরেন ত্রিপুরা:মৃত্যু বার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি

প্রকাশ: ২০১৮-০৮-২৬ ২৩:২৫:৪৫ || আপডেট: ২০১৮-০৮-২৭ ১৩:১৭:১৮

 

শংকর চৌধুরী,খাগড়াছড়ি॥

আমাদের মাঝ থেকে হারিয়ে যাওয়া এমন কিছু মানুষ আছেন, যাঁরা স্বল্প পরিচয়েই মনে দাগ কাটেন। তাঁদের একজন বরেন্দ্র কুমার ত্রিপুরা প্রকাশ বরেন ত্রিপুরা। আদর্শবাদ বা ভাবাদর্শে বিশ্বাসী বীর মুক্তিযোদ্ধা। তিনি ১৯২০ সালের ১৬ জুলাই ত্রিপুরা জাতির প্রাচীন লোকালয় ঠাকুর ছড়া গ্রামে জম্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম উদয় চন্দ্র ত্রিপুরা এবং মাতার নাম হরশ্রী রোয়াজা।

১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ স্বাধীনতা ঘোষণার পর ১০ এপ্রিল, মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনার জন্য গঠিত বাংলাদেশের প্রথম সরকার। মুজিবনগর সরকার সরকার। ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল মেহেরপুর জেলার বৈদ্যনাথতলা গ্রামে মুজিবনগর সরকার শপথ গ্রহণ করে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে বৈদ্যনাথতলা গ্রামের নামকরণ হয় মুজিবনগর। সেই মুজিবনগর সরকারের একজন আদর্শ প্রশাসনিক কর্মকর্তা ছিলেন বরেন ত্রিপুরা। তিনি ২০১৫ সালের ২৬ আগস্ট মৃত্যুবরণ করেন।

আদর্শচিন্তা, তিনি বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ প্রতিষ্ঠাতাদের মধ্যে অন্যতম। বাংলাদেশের ত্রিপুরাদের মধ্যে তিনি পঞ্চাশ দশকের কবি রসধমব ও সাহিত্যিক। তার লিখিত গ্রন্থগুলোর মধ্যে অজানা পাহাড়ী সুর (১৯৬৬ ইংরেজী), দি ত্রিপুরাস অফ চিটাগং হিলট্র্যাক্টস্ (১৯৭৭ ইংরেজি), বরক (১৯৮১ ইংরেজি) এবং নঙ কাচাকছার জীবন মোর্চা (১৯৯৬ ইংরেজী) অন্যতম। প্রশংসনীয় গুণসম্পন্ন এ গুণীর মৃত্যু বার্ষিকীতে গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি।

তৃতীয় মৃত্যু বার্ষিকী রোববার (২৬ আগস্ট) খাগড়াছড়িতে তার কন্যার বাসভবনে পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে ধর্মীয় ও মাঙ্গলিক বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াও আত্মীয়-স্বজনদের মধ্যাহ্ন ভোজে আপ্যায়ন করা হয়। তার প্রয়ান দিবসের অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি বাসন্তী চাকমাসহ সমাজের বিশিষ্টজনরা যোগ দেন।

উল্লেখ্য, প্রয়াত বরেন ত্রিপুরা খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা রণ বিক্রম ত্রিপুরা এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরার পিতা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *