চট্টগ্রাম, , বুধবার, ২৯ জুন ২০২২

অধীর বড়ুয়া বোয়ালখালী প্রতিনিধি

বোয়ালখালীতে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকীর অনুষ্ঠান বন্ধের নির্দেশ ইউএনও’র

প্রকাশ: ২০১৮-০৮-২৮ ২২:৩১:৪৩ || আপডেট: ২০১৮-০৮-২৮ ২২:৩১:৪৩

 

বোয়ালখালীতে শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদ আয়োজিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাত বার্ষিকীর অনুষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও)।

মঙ্গলবার (২৮ আগস্ট) বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আছিয়া খাতুন এ নির্দেশ প্রদান করেন। ইউএনও জানান, শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদ ও ইউনিয়ন স্বেচ্ছা সেবক লীগ একই স্থানে একই সময়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। স্ব-স্ব সিদ্ধান্তে অনড় থাকায় উভয় পক্ষকে অনুষ্ঠান না করার জন্য বলা হয়েছে। যদি এ নির্দেশ তারা না মানেন তবে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বোয়ালখালী উপজেলার শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে পরিষদ চত্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে শোক সভা ও মেজবান আগামী ৩০ আগস্ট বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটায় অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আছিয়া খাতুন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল।

এ লক্ষে শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয় বলে জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মোকারম। তিনি বলেন, অনুষ্ঠান উপলক্ষে পোস্টার, ব্যানার ও মেজবানের জন্য গরু-ছাগল ক্রয় করা হয়ে গেছে। প্রায় ৪হাজার মানুষের জন্য আয়োজন রয়েছে। এছাড়া পরিষদ চত্বরে মঞ্চ নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায়ে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ২৭ আগস্ট সোমবার সন্ধ্যায় স্থানীয় কয়েকজন ব্যক্তি দলবদ্ধ হয়ে একইস্থানে মাইক লাগায় ও ডেকোরেশনের সরঞ্জাম জড়ো করে রাখে। বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসনকে জানালে পুলিশ অনুষ্ঠানস্থলে গিয়ে তাদের কাজ বন্ধ রাখতে বলে। পরবর্তীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে বৈঠক করার জন্য বলেন। বুধবার দুপুরে এ বৈঠক অনুুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে কয়েকজন দুর্বৃত্ত ইউপি সদস্য ইব্রাহীম (৪১), উপজেলা কৃষকলীগের সদস্য বাদশা আলম (৩০) কে  মারধর করেছে।

ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের ব্যানারে একই স্থানে একই সময়ে শোকসভা ও কর্মী সভা আহ্বান করায় এ জটিল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। তবে ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কোনো সভা ওই স্থানে আহ্বান করা হয়নি বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মিজানুর রহমান সেলিম।

এ ব্যাপারে ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো. লোকমান ও সাধারণ সম্পাদক মো. ফারুক মিয়া জানান, ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানে শাহাদাত বার্ষিকী পালন করা হয়নি। বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের একনিষ্ট কর্মী হওয়ায় এ আয়োজন করেছেন। এতে হিংসার বশবর্তী হয়ে কয়েকজন ব্যক্তি স্বেচ্ছাসেবক লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে অনুষ্ঠানটি প- করে দিয়েছে।

জানা গেছে, শ্রীপুর-খরণদ্বীপ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসমাঈল হোসেন খোকনের লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলার নির্বাহী কার্যালয়ে দু’পক্ষের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে দুইপক্ষ স্ব-স্ব সিদ্ধান্তে অনড় থাকায় উভয়পক্ষকে কোনো ধরণের সভা-সমাবেশ না করার নির্দেশ দেন ইউএনও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *