চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২

মিজবাউল হক চকরিয়া অফিস

চকরিয়ায় হিউম্যান হুইলার বন্ধ থাকায় যাত্রীদের মানববন্ধন

প্রকাশ: ২০১৮-০৮-৩০ ২১:১৫:৩৫ || আপডেট: ২০১৮-০৮-৩০ ২১:১৫:৩৫

 

কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চকরিয়ায় ৩৪ কিলোমিটার সড়কে চার চাকার যান বন্ধ করে দেয়ায় জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে।

এতে জনগণের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সড়কে বিকল্প ব্যবস্থা না থাকায় হঠাৎ করে প্রশাসন চার চাকার যান হিউম্যান হুইলার জিটু বন্ধের সিদ্ধান্তের কারণে এ দুর্ভোগ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে ভুক্তভোগী যাত্রীদের অভিযোগ।

৩০ আগষ্ট বৃহস্পতিবার বিকালে এসব যান চলাচলে সুযোগ দেওয়ার দাবীতে মানববন্ধন করেছেন বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সম্প্রতি কক্সবাজার মহাসড়কে চকরিয়া পয়েন্টে প্রশাসনের হিউম্যান হুইলার জিটু বন্ধের সিদ্ধান্তের কারণে চকরিয়ার উত্তর হারবাং, আজিজনগর ষ্টেশন হতে খুটাখালী নতুন অফিস পর্যন্ত শতাধিক ষ্টেশন এলাকায় গাড়ি বন্ধ থাকার কারণে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসায় অধ্যায়নত হাজার হাজার শিক্ষার্থী, বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্কের পর্যটক, রোগী ও সাধারণ যাত্রীদের যাতায়তে দুর্ভোগ চরমে। এ চার চাকার হিউম্যান হুইলার যানবাহন বন্ধ থাকার কারণে বড় যানবাহনে যাত্রীদের যাতায়তে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়সহ নানা ভোগান্তি ও হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন রশিদ আহমদ নামের খুটাখালী এলাকার এক যাত্রী। প্রশাসনের কঠোর অবস্থানের কারণে মহাসড়কে গাড়ি না থাকায় চরম বিপাকে পড়তে হচ্ছে উপজেলাবাসীকে। এতে মহাসড়কে প্রশাসনের ভয়ে গাড়ি বের করছে না মালিক ও চালকরা। ফলে চরম ভাবে ভোগান্তির শিকার হচ্ছে শিক্ষার্থী, রোগীসহ হাজার হাজার সাধারণ যাত্রী। ৩০আগষ্ট বৃহস্পতিবার বিকেলে কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়ায় বিভিন্ন পয়েন্টে হিউম্যান হুইলার জিটু চার চাকার যানবাহন চালুর দাবিতে মানববন্ধন করেছ হাজারো ভুক্তভোগী সাধারণ যাত্রী। এদিকে চকরিয়ায় ডুলাহাজারা ষ্টেশনে হিউম্যান হুইলার জিটু গাড়ী চালুর দাবীতে সারারণ জনগণ ও ভুক্তভোগীদের বিশাল মানববন্ধন করেছে বিভিন্ন শ্রেণির পেশার মানুষ।

মানববন্ধনে অংশ নেয়া ভুক্তভোগীরা বলেন, মহাসড়কে যাতায়তে যাত্রীদের দুর্ভোগ থেকে রক্ষা করতে ও হিউম্যান হুইলার জিটু চার চাকার গাড়ী চালুর দাবী জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি। এ চার চাকার গাড়ী বন্ধ রাখায় অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে যাতায়ত করতে প্রতিদিন নানা হয়রানীর শিকার হচ্ছে বলেও তারা জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *