চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

নূর হোসেন মামুন , কাপ্তাই প্রতিনিধি :

কাপ্তাইয়ে নানান আয়োজনে উদযাপন করা হবে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস

প্রকাশ: ২০১৯-০৩-০৪ ২২:০৫:৩৭ || আপডেট: ২০১৯-০৩-০৪ ২২:০৫:৩৭

 নূর হোসেন মামুন, কাপ্তাই : একাত্তরের ২৬ মার্চের প্রথম প্রহরে পাকিস্তানি বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হওয়ার আগে বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষণা করেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা। বলেন, ‘এটাই হয়তো আমার শেষ বার্তা। আজ থেকে বাংলাদেশ স্বাধীন।’ সেই থেকে শুরু। এরপর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর নির্বিচার হত্যা, ধ্বংস ও পৈশাচিকতার বিরুদ্ধে ৯ মাসের মরণপণ লড়াইয়ে ৩০ লাখ শহীদের আত্মদানের বিনিময়ে অভ্যুদয় ঘটে স্বাধীন বাংলাদেশের। বরাবরের মতো গোটা জাতি ২৬শে মার্চকে শোক ও গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে অবনতচিত্তে স্মরণ করছে স্বাধীনতার জন্য আত্মোৎসর্গকারী শহীদদের। শ্রদ্ধা জানাচ্ছে মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, চার জাতীয় নেতা আর বাংলার অকুতোভয় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের। তারই ধারাবাহিকতায় সারাদেশের ন্যায় কাপ্তাইয়েও আগামী ২৬ শে মার্চ নানান আয়োজনের মধ্য দিয়ে উদযাপ করা হবে স্বাধীনতা দিবস।

এই উপলক্ষে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ৩১ বার তোপধ্বনি, সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত এবং ব্যক্তিমালিকানাধীন ভবনসমূহে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, দিবসটি উপলক্ষে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত শহরের প্রধান প্রধান সড়কে ও সড়ক দ্বীপ সমূহ জাতীয় পতাকা ও বিভিন্ন রঙের পতাকা দিয়ে সজ্জিত করা, শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম প্রাঙ্গনে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীদের সমাবেশ, কুচকাওয়াজ, ডিসপ্লে ও শরীরচর্চা প্রদর্শন করা হয়। পরে চিত্রাংকণ সহ মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সোমবার সকালে উপজেলা রেষ্ট হাউজ সভাকক্ষে কাপ্তাই উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে এক প্রস্তুতি সভায় এসম কথা জানানো হয়। কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রাফ আহমেদ রাসেলের সভাপতিত্বে এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কাপ্তাই উপজেলা চেয়ারম্যান মো. দিলদার হোসেন।

এসময় কর্ণফুলী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ এ.এইচ.এম বেলাল চৌধুরী, উপজেলা প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম, কাপ্তাই উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নাদির আহমেদ চৌধুরী সহ উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকবৃন্দ, ক্রীড়া সংস্থার নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া আগামী ১৭ই মার্চ উপজেলা রেষ্ট হাউজ সভাকক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯ তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস, ২৫ই মার্চ গণহত্যা দিবস উদযাপন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *