চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

আবদুল হাকিম রানা পটিয়া প্রতিনিধি

পটিয়ায় উপজেলা নির্বাচনে মোতাহেরুল ইসলামের ব্যাপক গন সংযোগ

প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১৪ ২৩:২০:৪০ || আপডেট: ২০১৯-০৩-১৪ ২৩:২০:৪০

আবদুল হাকিম রানা, বীর কন্ঠ : আগামী ২৪ মার্চ পটিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। এ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী সৎ ত্যাগী ও পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হিসেবে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী সিনিয়র সহ সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী নৌকার প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছেন। তার এ মনোনয়ন লাভে পটিয়ার উন্নয়নকামী মানুষের মাঝে এক ধরনের স্বস্তির ভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছে। কারণ বিগত তিন মেয়াদে পটিয়া থেকে নির্বাচিত এমপি বর্তমানে মহান সংসদে মন্ত্রী সমমর্যাদায় নবনিযুক্ত হুইপ সামশুল হক চৌধুরী পটিয়ায় যে উন্নয়ন করেছেন তা আজ সারা দেশে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। যার ধারাবাহিকতা রক্ষার জন্য পটিয়ার মানুষ একজন যোগ্য দেশপ্রেমিক উপজেলা চেয়ারম্যান পাওয়ার প্রত্যাশায় ছিল। বর্তমানে পরীক্ষিত ত্যাগী নেতা মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী নৌকা পাওয়ায় সাধারণ মানুষের মাঝে উৎসাহ উদ্দীপনা লক্ষ্য তরা যাচ্ছে। তারা আশা প্রকাশ করছে, পটিয়ার হুইপের উন্নয়ন ধারাবাহিকতা রক্ষার জন্য হুইপ সহ জেলা ও উপজেলা আওয়ামী সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এখন সাধারণ নেকর্মীদের উচিত হবে নৌকাকে বিজয়ী করতে মাঠে ময়দানে সভা, সমিতি ও প্রতিটি বাড়ী ও পাড়ায় উঠোন বৈঠক করা। স্থানীয় ভোটার মন্জুরুল আলম বলেন, আওয়ামী লীগ নেতা মোতাহেরুল ইসলাম চৈধুরী একজন ত্যাগী ও পরি’চ্ছন্ন রাজনীতিবিদ, তিনি জনগনের দু:সময়ের কান্ডারী। মুক্তিযোদ্ধা নুর মোহাম্মদ বলেন, পটিয়া হাজার বছরের গৌরবময় ঐতিহ্যবাহী এলাকা। পটিয়াকে উন্নত সমৃদ্ধ করতে হলে হুইপের আপনজন মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরীকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করতে হবে। উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম সামশুজ্জামান চৌধুরী বলেন, পটিয়ায় মাননীয় হুইপ সামশুল হক চৌধুরী আড়াই হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন করেছেন। তার এ উন্নয়নকে এগিয়ে নিতে হলে সৎ যোগ্য প্রার্থী হিসেবে মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরীকে নৌকায় ভোট দিতে হবে। আ’লীগের মনোনীত প্রার্থী মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, আমি দীর্ঘদিন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত রয়েছি। স্বাধীনতার পরে বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদ করতে গিয়ে আমাকে নানা নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে। এরপরও আমি আদর্শচ্ছুত হয়নি। নির্বাচনে আমি কাউকে খাটো করে দেখছি না, প্রার্থী যেই হোক তাকে ভোটের মাধ্যমে মোকাবেলা করতে হলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মীকে দলের সিদ্ধান্ত মোতাবেক নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করার জন্য কাজ করতে হবে।

গণসংযোগকালে তার সাথে ছিলেন উপজেলা আ’লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম সামশুজ্জামান চৌধুরী, জেলা পরিষদ প্যানেল চেয়ারম্যান দেবব্রত দাশ, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, আলমগীর আলম, ফরিদ আহমদ, আশীষ গোস্বামী, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *