চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

নীরব জসীম ডেস্ক কন্ট্রিবিউটর

লোহাগাড়ায় শেষ মূহুর্তে প্রার্থীদের নির্ঘুম প্রচারণায় এগিয়ে আছে আনারস প্রতিক

প্রকাশ: ২০১৯-০৩-২১ ১৭:২০:১০ || আপডেট: ২০১৯-০৩-২১ ১৭:২০:১০

লোহাগাড়া অফিস : আগামী ২৪ মার্চ আসন্ন উপজেলা পরিষদের তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে লোহাগাড়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থীরা নির্ঘুম প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। দিন রাত ভোটারের দ্বারে দ্বারে গিয়ে নিজ নিজ প্রতিকের জন্য ভোট প্রার্থণা করছেন। উপজেলার আনাচে কানাচে নির্বাচনকে সামনে রেখে শোভা পাচ্ছে পোস্টার, ব্যানার ও পেস্টুন। রিক্সা, সিএনজি, মোটরসাইকেল শোভাযাত্রাসহ নানান কৌশলে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। ভোটারদের হাতে হাতে পৌছে দিচ্ছে নির্বাচনি এস্তেহার সম্বলিত লিপলেট। বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোটারদের আকৃষ্ট করছেন অনেকে।

এদিকে নির্বাচনি প্রচারণায় এগিয়ে রয়েছে আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামীলীগ নেতা জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুল। তিনি দিন-রাত উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে আনারস প্রতিক নিয়ে ভোটারের ধারে ধারে গিয়ে ভোট কামনা করছেন। এসময় তিনি ভোটারের কাছে ন্যায়-বিচার প্রতিষ্ঠা, সন্ত্রাস, চাদাঁবাজ ও মাদক মুক্ত উপজেলা গঠনে আনারস প্রতিকে ভোট দেওয়ার আহ্বান করেন।

প্রতিবেদকের সাথে একান্ত আলাপকালে তিনি বলেন, আমি কখনও দূর্নীতিকে প্রশ্রয় দিয়নি। উপজেলায় ন্যায়-বিচার প্রতিষ্ঠা করেছি। গতবারে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থাকাকালে মা সমাবেশের মাধ্যমে উপজেলায় শিক্ষাক্ষেত্রে ব্যাপক ভূমিকা পালন করি। যা সারা বাংলাদেশে এখন মডেল হিসেবে নিয়েছে। শুধু তাই নয় আমি উপজেলা চেয়ারম্যান থাকাকালে প্রতি শনিবার উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে বিচারকার্য পরিচালনার মাধ্যমে সমাজের অসহায় দুস্থঃ মানুষদের সঠিক বিচার পাইয়ে দেওয়ার জন্য সহযোগীতা করেছি। উপজেলার কোন মানুষকে থানার কোন মামলায় হয়রানি হতে দেয়নি। বিপদে আপদে সবসময় জনগণের পাশে ছিলাম। দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে উপজেলার মানুষের সেবা করে যাচ্ছি। গত পাঁচ বছর ক্ষমতার বাহিরে থাকলেও বিভিন্ন সামাজিকও উন্নয়নমূলক অনুষ্ঠানে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেছি। উপজেলাকে খেলা-ধুলায় এগিয়ে নেওয়ার জন্য সদরে শাহপীর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে গড়ে তুলেছি ড. কর্ণেল অলি আহমদ বীর বিক্রম স্টোডিয়াম। এলাকার কোমলমতি শিশুদের আধুনিক শিক্ষা প্রসারের জন্য গড়ে তুলেছি শাহপীর চাইল্ড কেয়ার একাডেমী।

এছাড়াও আমি দীনি শিক্ষার প্রসারের জন্য গড়ে তুলেছি সওদাগর পাড়া এবতেদায়ী মাদ্রাসা।
লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের একটি অংশ জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুলের পক্ষে ব্যাপক প্রচার- প্রচারণা ও গনসংযোগ করতে দেখা যায়। তারা বলেন, জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুল আওয়ামীলীগ নেতা, তিনি নৌকা প্রতিক প্রত্যাশী ছিলেন। ষড়যন্ত্রমূলকভাবে তাকে নৌকা প্রতিক পাওয়া থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। লোহাগাড়ার উন্নয়ন, সন্ত্রাস, চাদাঁবাজ ও মাদক মুক্ত রাখতে একজন বাবুল চেয়ারম্যানের প্রয়োজন। তাই আমরা এলাকার ও লোহাগাড়ার উন্নয়নের স্বার্থে বাবুল চেয়ারম্যানের পক্ষে কাজ করছি।

আনারস প্রতিকের স্বতন্ত্রপ্রার্থী জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুলের গণসংযোগে অংশগ্রহণ করেন পুটিবিলা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান ফরিদ উদ্দিন, পদুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন, লোহাগাড়া উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন হিরু, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এইচএম গণি সম্্রাট, নুরুল আমিন চৌধুরী শাহ্ আলম প্রকাশ দুবাই শাহ্আলম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আকতার আহামদ সিকদার, বটতলীর বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আবুল বশর সওদাগর, দর্জিপাড়ার বিশিষ্ঠ সমাজসেবক ফরিদ উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক জহির উদ্দিন, দক্ষিণ জেলা যুবলীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মিয়া মুহাম্মদ শাহজাহান বিন আজিজ, উপজেলা ব্রিক ফিল্ড মালিক সমিতির সভাপতি শাহাব উদ্দিন চৌধুরী, সাংবাদিক কাইচার হামিদ, বিশিষ্ঠ্য ব্যবসায়ী মহিউদ্দিন চৌধুরী ভূট্টো, যুবলীগ নেতা বাদশা খালেদ সিকদার, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক রিদুয়ানুল হক সুজন, দোকান কর্মচারী পরিষদের সভাপতি মিছবাহ উদ্দিন রাজীব, যুবলীগ নেতা তৌহিদুল ইসলাম, যুব নেতা নুরুল আলম, মোসলেম উদ্দিন, খাজত আলম, শাহাব উদ্দিন, শাহাদত হোসেন সাজ্জাদ, তৌহিদ সিকদারসহ প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *