চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯

রফিকুল আলম ফটিকছড়ি প্রতিনিধি

মাইজভান্ডার দরবার শরীফে বাবা ভান্ডারী (ক.) ওরশ শরীফ সম্পন্ন

প্রকাশ: ২০১৯-০৪-০৬ ০০:০২:৫৮ || আপডেট: ২০১৯-০৪-০৬ ০০:০২:৫৮

 রফিকুল আলম : উপমহাদেশের প্রখ্যাত অলিয়ে কামেল মাইজভান্ডার আধ্যাত্মিক সাধক হযরত গাউসুল আজম শাহসূফি মাওলানা সৈয়দ গোলামুর রহমান (কঃ) আল হাছানী, ওয়াল হোছাইনী, আল মাইজভান্ডারী; প্রকাশ- বাবা ভান্ডারী কেবলার ২ দিন ব্যাপী ওরশ শরীফের প্রধান দিবস ৫ এপ্রিল শুক্রবার মহাসমারোহে ফটিকছড়ি উপজেলার মাইজভান্ডার দরবার শরীফে যথাযোগ্য মর্যাদায় অনুষ্ঠিত হয়। অগণিত ভক্তবৃন্দের পদচারণায় নাজিরহাট হতে মাইজভান্ডার দরবার শরীফ পর্যন্ত ৭/৮ কিলোমিটার সড়ক জনারণ্যে পরিণত হয়।

অন্যান্য বছরের চেয়ে এবার আশেকানে ভক্তদের উপস্থিতি ছিল বেশী। গত ৫ এপ্রিল সকাল হতে মাইজভান্ডার সড়ক সহ নাজিরহাট এলাকায় চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহা সড়কের হাটহাজারীর কাটিরহাট হতে ফটিকছড়ির ফেলা গাজী দিঘী পর্যন্ত প্রায় ২৫ কিলোমিটার জুড়ে ভক্তদের নিয়ে আসা যানবাহন। সে সাথে উল্লেখিত সড়কের পাশের বিভিন্ন বিদ্যালয় ও পাইন্দংস্থ সিএন্ডবি মাঠে শত শত যানবাহনের সারি। ফলে কয়েক কিলোমিটার জুড়ে ছিল প্রচন্ড যানজট। আগত বক্তরা পদব্রজে মাইজভান্ডার যেতে দেখা যায়। এসময় ফটিকছড়ি থানা পুলিশ ও নাজিরহাট হাইওয়ে পুলিশ এবং গাউছিয়া রহমান মঞ্জিলের সেচ্ছা সেবকরা হিমসিম খেতে হয়। সন্ধ্যায় লাখো লাখো আশেক-ভক্তবৃন্দের সমাগমের কারনে দরবার শরীফে কোথাও তিল ধারনের জায়গা ছিল না।

আগত ভক্ত-আশেকরা গাউছিয়া রহমান মঞ্জিলে সারিবদ্ধভাবে সাজ্জাদানশীনদের সাথে সাক্ষাত করেন। সে সাথে মাইজভান্ডার দরবার শরীফের পূর্ব বাড়ীতে সাজ্জআদানশীন হযরতুলহাজ্ব শাহছূফি মাওলানা ছৈয়দ মুজিবুল বশর আল হাচানী-আল মাইজভান্ডারী (ম:জি:আ:) সাক্ষাত করে দোয়া কামনা করতে দেখা যায়। তাছাড়া আগত ভক্তরা হযরত শাহছুফি মাওলানা সৈয়দ গোলামুর রহমান (ক:) আল-হাছানী আল-মাইজভান্ডারী প্রকাশ বাবা ভান্ডারীর রওজা সহ অন্যান্য রওজায় ঘুরে ঘুরে জিকির আজগর ও কোরআন শরীফ এবং অজিফা পাঠ করে জেয়ারতের মাধ্যমে নিজ নিজ মনোবাসনা পূরণের জন্য মহান রাব্বুল আলামীনের দরবারে ফরিয়াদে মশগুল ছিল।

রাতে আলোচনা সভাও মিলাদ মাহফিলে সমগ্র মাইজভান্ডার ছিল নিরব নিস্তদ্ধ ।এ উপলক্ষে গাউছিয়া রহমান মঞ্জিলের উদ্যোগে ব্যাপক কর্মসূচী পালন করে। কর্মসূচীর মধ্যে ছিল বাদে ফজর বাবা ভান্ডারীর (ক.) রওজা শরীফে গোসল, খতমে কোরআন, খতমে গাউছিয়া, মিলাদ মাহফিল, জিকির,আজগার, আলোচনা সভা ও সবশেষে মুসলিম উম্মাহর ও বিশ্বের সমস্ত মানুষের জন্য সুখ শান্তি কামনা করে আখেরী মোনাজাত ও তবারুক বিতরন।

সকল কর্মসূচী শেষে রাতে সকল উম্মাহর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেন, সাজ্জাদানশীন হযরতুলহাজ্ব শাহছূফি মাওলানা ছৈয়দ মুজিবুল বশর আল হাচানী-আল মাইজভান্ডারী (ম:জি:আ:)। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, শাহজাদা সৈয়দ নুরুল বশর মাইজভান্ডারী ও লাখো অশেকানে ভক্তরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *