চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০

খলিল চৌধুরী সৌদি আরব প্রতিনিধি

সৌদি আরব জুড়ে চলছে ব্যাপক ধরপাকড় :প্রতিদিন ফিরছে প্রবাসীরা

প্রকাশ: ২০২০-০২-১৯ ১০:১৬:৩০ || আপডেট: ২০২০-০২-১৯ ১০:১৬:৪১

খলিল চৌধুরী, সৌদি আরব প্রতিনিধি:

সৌদি আরব জুড়ে বিভিন্ন অঞ্চলে চলছে ব্যাপক ধর পাকড় চলছে। এই ধরপাকড় কমপক্ষে আরো ১৫ দিন ধরে চলবে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।মূলত যারা গৃহকর্মী ভিসায় এসে বিভিন্ন পেশায় কাজ করছেন, তারাই এই ধরপাকড়ের মূল টার্গেট বলে বিবেচিত হচ্ছেন। যেমন, হাউজ ড্রাইভার(সাওয়াক খাস) , এবং গৃহকর্মী(আমেল মঞ্জিল) যারা বাইরে কাজ করেন বিভিন্ন কন্সট্রাকশন সাইটে বা বিভিন্ন দোকানপাটে।

যে যেখানেই কাজ করেন না কেন, সবখানেই সৌদি আরবের যৌথ বাহিনীর পরিচালিত এই অভিযানে কম বেশী চেক হচ্ছে। সৌদি পুলিশ এবং মক্তব আমেলের সমন্বয়ে এই যৌথ বাহিনী গঠিত হয়েছে।যৌথ বাহিনী পরিচালিত এই অভিযানে যাদের ইকামা নেই(মেয়াদহীন ইকামা বা ইকামাহীন) অথবা ইকামা থাকলেও ইকামার পেশামতে কাজ না করে, বাইরে বিভিন্ন পেশাতে কাজ করছে যারা, তাদেরই টার্গেট করা হচ্ছে।

মূলত ২০১৭ সাল থেকে ইকামা ফি দ্বিগুণ, অতঃপর চৌগুণ হারে বাড়ার পর হাউজ ড্রাইভার(সাওয়াক খাস) এবং গৃহকর্মী ভিসায় অনেকেই আসছেন সব কিছু জেনে বুঝে। কেননা, এই দুটি পেশায় নামমাত্র মূল্যে ইকামা নবায়ন করার সুযোগ রয়েছে।আর এই সুযোগ গ্রহণ করে অনেকেই বাইরে কাজ করার সুবিধা নিচ্ছেন, আইনের চোখে যা একরকম অবৈধ! আর তাই, চলছে আকস্মিক এই শুদ্ধি অভিযান।

উল্লেখিত, দুটি পেশা পরিবর্তন দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। তবে, সম্প্রতি সরকার ঘোষণা দিয়েছে, সাওয়াক খাস এবং আমেল মঞ্জিল পেশার লোকরাও পেশা পরিবর্তন করে অন্যত্র ট্রান্সফার হয়ে যেতে পারবেন। অর্থাৎ কফিল পরিবর্তন করতে পারবেন।পেশা পরিবর্তনের সরকারী ঘোষণার প্রায় ২ সপ্তাহ পর থেকেই চলমান এই যৌথ অভিযান শুরু হয়েছে। বিশেষ করে নির্দিষ্ট এই দুটি পেশাকে টার্গেট করা হয়েছে যাতে করে, এই দুই পেশাতে এসে যারা বাইরে ভিন্ন কাজ করছেন, তাঁরা যেন পেশা পরিবর্তন করে নিতে পারেন।কাজেই কম খরচে ইকামা করিয়ে এই দুই পেশায় থেকে বাইরে স্বাধীনভাবে কাজ করার অবাধ সুযোগ হয়তো আর বেশিদিন থাকছে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *