চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

খলিল চৌধুরী সৌদি আরব প্রতিনিধি

সৌদিতে করোনা আক্রান্ত ৩৩৪ ও কোয়ারেন্টাইনে ৪০৮০ জন, আজ থেকে ১৪ দিন যানবাহন চলাচল বন্ধ

প্রকাশ: ২০২০-০৩-২১ ১১:৩৩:৩০ || আপডেট: ২০২০-০৩-২১ ১১:৩৩:৩৮

খলিল চৌধুরী, সৌদি আরব প্রতিনিধি :

সৌদি আরবে করোনায় আক্রান্ত ২৪৪ জন ও কোয়ারেন্টাইনে ৪০৮০-জন, যানবাহন চলাচল ১৪ দিনের জন্য বন্ধ ঘোষনা।

সৌদি আরবে নতুন করে ৭০ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী চিহ্নিত করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৩৪ জন।


দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, নতুন করে আক্রান্ত ১৭ জন মরক্কো, স্পেন, ইরান, ব্রিটেন, পাকিস্তান, ভারত, ইরাক, কুয়েত, আমেরিকা এবং মিশর থেকে আসা। ১৯ জন তাদের সংস্পর্শে থাকা ব্যক্তি।

আর, এ পর্যন্ত মোট ৮ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন। এছাড়া, পূর্বের একজন বাংলাদেশি আক্রান্ত হওয়া ছাড়া নতুন করে কোন বাংলাদেশি আক্রান্তের খবর পাওয়া যায়নি। তবে এখন পর্যন্ত সৌদি আরবে কোন করোনা রোগী মারা যায়নি।

এছাড়া দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ২১শে মার্চ শনিবার থেকে পুরো সৌদি আরবে অভ্যন্তরীণ সমস্ত রুটে বিমান, বাস, ট্যাক্সি ও ট্রেন চলাচল ১৪ দিনের জন্য বন্ধ থাকবে।

এদিকে, মক্কার মসজিদুল হারাম এবং মদিনার মসজিদে নববীতে সাধারণ মুসল্লিদের উপস্থিতি সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে।

গত ১৯শে মার্চ বৃহস্পতিবার রাতে পবিত্র হারামাইন কর্তৃপক্ষের মুখপাত্র হানি বিন হোসনি হায়দার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কর্তৃপক্ষ করোনার বিস্তৃতি রোধে গৃহীত পদক্ষেপের অংশ হিসেবে শুক্রবার (২০শে মার্চ) থেকে এই স্থগিতাদেশ জারি করেছে।

তিনি হারামাইনের উদ্দেশ্যে আসা মুসলিমদের নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা বিবেচনা করে এই নির্দেশ মেনে চলার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

হোসনি হায়দার আরও বলেন, মসজিদ দুইটিতে পাঁচ ওয়াক্ত আজান এবং জামায়াতে নামাজ অব্যাহত থাকবে ইমাম, মুয়াজ্জিন এবং কর্মরতদের নিয়ে। এর আগে মসজিদে নববীর গাড়ী পার্কিং বন্ধ করা হয়েছে।

এখন পর্যন্ত সৌদি আরবে ৩৪৪-জন করোনাভাইরাস রোগে আক্রান্ত হয়েছে তবে যারা কোয়ারেন্টাইনে ৪০৮০ জন রয়েছেন, দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন কোয়ারেন্টাইনে তারা উন্নত মানের সেবা পাচ্ছেন।সুত্রঃ সৌদি গেজেট

অন্যদিকে, সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ বিন সউদ বলেছেন, আমরা এখন কঠিন দিন পার করছি, সামনে আরও কঠিনতম সময় আসছে।

মানুষের নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা দেওয়া আমার প্রথম অগ্রাধিকার। সৌদি আরবে অবস্থানরত প্রিয় নাগরিক এবং রেসিডেন্টগন (মহান আল্লাহ আপনাদের সুস্থ ও নিরাপদে রাখুক) নিশ্চয় আমরা ইতিহাসের এক ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছি। কিন্তু আমরা বিশ্বাস করি, এই সময় চলে যাবে এবং সুদিন আসবে ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *