চট্টগ্রাম, , রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০

রফিকুল আলম ফটিকছড়ি প্রতিনিধি

ফটিকছড়িতে সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী এম পি’র মানবিক সহায়তা

প্রকাশ: ২০২০-০৪-০৬ ২১:১১:৪৭ || আপডেট: ২০২০-০৪-০৬ ২১:১১:৫১

রফিকুল আলম: ফটিকছড়ি থেকে নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য, বাংলাদেশ তরীকত ফেডারেশন (বিটিএফ) এর চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারীর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৬ এপ্রিল সকাল ১১ টায় ফটিকছড়ি উপজেলা পরিষদ মাঠে মানবিক সহায়তায় তিন হাজার পরিবারের মাঝে দ্বিতীয় বারের মত খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেন। এর আগে গত ৪ এপ্রিল নাজিরহাট পৌরসভায় উক্ত খাদ্য সামগ্রী বিতরন কার্যক্রম প্রথম শুরু করেন। খাদ্য সামগ্রী বিতরনের সময় উপস্থিত ছিলেন ফটিকছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এইচ. এম. আবু তৈয়ব, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ সায়েদুল আরেফীন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট সালামত উল্লাহ চৌধুরী শাহীন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেবুন নাহার মুক্তা, ফটিকছড়ি পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মুহাম্মদ ইসমাইল হোসেন, নাজিরহাট পৌরসভার মেয়র এম. সিরাজ উদ দৌল্লাহ প্রমুখ। এ সময় উপজেলা পরিষদ এর সরকারী বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন। ত্রান বিতরন কালে সাংসদ বলেন, আপনারা সবাই সরকারী নির্দেশনা মেনে চলুন এবং নিজে বাঁচুন, পরিবার ও সমাজকে বাঁচান। সবাইকে সব সময় সতর্ক ও সচেতনা অবলম্বন করে সামাজিক ও নিরাপদ দুরত্ব বজায় রেখে চলার অনুরুধ জানাচ্ছি। কেউ দয়া করে অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হবেন না। তিনি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যতক্ষন আছেন ততক্ষন এদেশের কোন মানুষ না খেয়ে থাকবে না এবং প্রত্যেক মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌছিয়ে দেওয়া হবে। আমরাও ফটিকছড়িতে প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে সমন্বয় করে প্রত্যেকের ঘরে ঘরে সাধ্যমত খাদ্য সামগ্রী পৌছিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করতেছি। আমরা বেচে থাকতে ইনশাআল্লাহ ফটিকছড়িতে কোন মানুষ না খেয়ে থাকবেনা। তিনি বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করে বলেন, ফটিকছড়ি উপজেলা প্রশাসন এর উদ্যেগে করোনা মোকাবেলায় গঠিত আপদ কালীন ফান্ডে মানবতার কল্যানে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার জন্য আহবান জানাচ্ছি। উল্লেখ্য ইতিমধ্যে সাংসদ আলহাজ্ব সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী ফটিকছড়ি উপজেলা প্রশাসন এর উদ্যেগে করোনা মোকাবেলায় গঠিত আপদ কালীন ফান্ডে মানবতার কল্যানে এক লক্ষ টাকা অনুদান প্রদান সহ পুরো উপজেলায় কর্মরত ডাক্তার, নার্স ও স্বাস্থ্য সহকারী সহ এবং উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের জন্য প্রত্যেকের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় প্রায় সাড়ে তিনশত পিপিই প্রদান সহ প্রায় ৫/৬ লক্ষ টাকা খরচ করেছেন। বর্তমানে সাংসদের ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে ফটিকছড়িতে মানবিক সহায়তায় তিন হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন কার্যক্রম চলমান রয়েছে এবং যেই কোন প্রয়োজনে সব সময় সার্বিক সহযোগীতা অব্যাহত রাখবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *