চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০

মুহাম্মদ সাইফুদ্দিন খালেদ বোয়ালখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি।

করোনা আতংকেও সর্বক্ষণ সেবা দিয়ে যাচ্ছেন প্যানেল মেয়র মিজান

প্রকাশ: ২০২০-০৪-১৫ ১৯:৫৪:০৭ || আপডেট: ২০২০-০৪-১৫ ১৯:৫৪:১১

মুহাম্মদ সাইফুদ্দিন খালেদ, বোয়ালখালী প্রতিনিধি:

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে বিশ্বজুড়ে চলছে মহামারি দূর্যোগ। এতে করে দেশব্যাপী একপ্রকার গৃহবন্দি হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষের জনজীবন। বিশেষ করে খেটে খাওয়া মানুষগুলিই বেশি কষ্টের মধ্যে দিন পার করছেন। এই কষ্টের দিন কবে শেষ হবে তা জানা নেই কারোই। সরকারি নির্দেশনা রয়েছে অপ্রয়োজনে ঘর থেকে বের না হওয়ার জন্য। যার ফলে কাজ করতে না পেরে খেটে খাওয়া মানুষগুলিকে দূর্ভোগে পড়তে হয়। আর এই দূর্ভোগে পড়া মানুষের জন্য সরকার দেশব্যাপী বিনামূল্যে খাদ্যদ্রব্য দিয়ে যাচ্ছেন। আর এই ত্রাণ সামগ্রি পৌরবাসির কাছে নিষ্ঠার সাথে পৌছে দিচ্ছেন পৌরসভার প্যানেল মেয়র, উপজেলা বিআরডিবির চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহজাদা এস এম মিজানুর রহমান। সকাল থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত অক্লান্তিকভাবে যখনি যেদিক থেকে ডাক আসছে মুহুর্তেই সেখানে ছুটে চলেছেন। সরকারের দেয়া ত্রাণ সামগ্রি ছাড়াও নিজের ব্যক্তিগত পক্ষ থেকেও ত্রাণ সামগ্রি দিচ্ছেন। সারাদিনের ক্লান্তির মাঝেও সাধারণ মানুষের মুখে তৃপ্তির হাসি দেখে এবং তাদের সেবা করতে পেরেই যেন সবক্লান্তি দুর হয়ে যায় মুহুর্তের মাঝে এমনটিই জানালের তিনি।

জানতে চাইলে শাহজাদা এস এম মিজানুর রহমান বলেন, মানুষ মানুষের জন্য, মানুষ হিসেবে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য।
করোনা ভাইরাস থেকে দেশবাসিকে রক্ষার্থে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন পদেক্ষেপ নিয়েছেন। চট্টগ্রাম-৮ আসনের মাননীয় সংসদ আলহাজ্ব মোছলেম উদ্দিন আহমদের অক্লান্ত পরিশ্রম, পরামর্শ, দিকনির্দেশনা অনুযায়ী
গৃহবন্দি মানুষের ঘরে ঘরে ত্রাণ সামগ্রি পৌছে দেয়ার যে দায়িত্ব আমাকে দিয়েছেন পৌরবাসির সেবক হিসেবে তা যথাযতভাবে পৌছে দেয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি। জন্ম যখন হয়েছে তখন একদিন মরতেও হবে, তাই যতদিন বেঁচে থাকবো মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে চাই। তাছাড়া তিনি সকলকে ঘরে সুস্থ ও নিরাপদে থেকে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার অনুরোধ জানান।

দেশের যে কোন দূর্যোগ মুহুর্তে এভাবে যদি সকল জনপ্রতিনিধিগণ সাধারণ মানুষের পাশে থেকে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেন তাহলে কোন মানুষই অনাহারে মরবেনা এমনটাই প্রত্যাশা জনসাধারণের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *