চট্টগ্রাম, , বুধবার, ২৭ মে ২০২০

মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কু নাইক্ষ্যংছড়ি প্রতিনিধি

কচ্ছপিয়ায় কৃষকের ধান ঘরে তুলতে বাঁধা ও বাড়িতে হামলার অভিযোগ

প্রকাশ: ২০২০-০৫-২২ ১৩:২৪:২৩ || আপডেট: ২০২০-০৫-২২ ১৩:২৪:২৮

মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কুঃ
রামু উপজেলার কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের তিতার পাড়া গ্রামে মসজিদে এতেকাফ থাকা কৃষক মোঃ ইসলামের পাঁকা ধান মাড়াই করে ঘরে তুলতে বাঁধা ও বাড়ি ভাংচুর করায় গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযোগ দায়ের করেছে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা। বৃহস্পতিবার (২১মে) এ ঘটনা ঘটে। অভিযোগ পেয়ে এ ঘটনার বিষয়ে পুলিশ তদন্তে নেমেছে। এ বিষয়ে গাড়ির চালক ও মোঃ ইউনুছসহ স্থানীয়রা জানান তিতার পাড়া আল-আমিন মার্কেট এলাকায় ১৬ এপ্রিল পিক-আপের ধাক্কায় ঐ এলাকার নুরুল আলমের ৯ বছরের ছেলে মোঃ রহিম উল্লাহ নিহত হয়। ঐদিন খবর পেয়ে পুলিশ গাড়ি চালককে আটক করে নিহত শিশুর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে আসেন । পরে বিষয়টি পিক-আপের মালিক ও নিহত ছেলের পরিবারের সাথে স্থানীয় ভাবে আপোষ মীমাংসা হয়। ঐদিন আদালতের আদেশক্রমে নিহত ছেলের লাশ উভয় পক্ষের সম্মতিতে পুলিশ ফাঁড়ি থেকে বাড়িতে এনে দাফন করেন নিহতের বাবা ও পরিবারের লোকজন। এর পরে গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ি থেকে আটক গাড়ী চালককে ছাড়িয়ে নেন তারা। ঐ ঘটনার দিন ধান পরিবহনের জন্য গাড়ীটি ভাড়া করেছিলেন ইসলামের ছেলে তাই গাড়ি ভাড়া করায় তাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে নিহত শিশুর পিতা ও পরিবারের লোকজন কৃষক ইসলামের বাড়িতে ভাংচুর করে ও ধান মাড়াই করে ঘরে তুলতে দিচ্ছেনা। এব্যপারে গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোঃ আনিছুর রহমান সাংবাদিকদের জানান বিষয়টি তারা উভয় পক্ষ স্থানীয় ভাবে টাকার বিনিময়ে আপোষ মীমাংসা হয়ে আমার কাছে আসলে আমি তাদের কাছে শিশুর লাশ এবং গাড়ী চালককে ছেড়ে দিই। গত ২১ মে এতেকাফে থাকা কৃষক ইসলামের বাড়িতে হামলা ও ধান মাড়াই করে বাড়িতে তুলতে না দেওয়ার অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে একজনকে ফাঁড়িতে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে সামাজিক ভাবে বিষয়টি শেষ করার জন্য বলি। এলাকাবাসীর মতে বিষয়টি দ্রুত সমাধান না হলে আরো বড় ধরনের ঘটনা হওয়ার আশংকার সম্ভাবনা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *