চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০

কাইছার হামিদ

রোহিঙ্গাদের করোনা সম্পর্কে ধারণা নেই

প্রকাশ: ২০২০-০৬-২৬ ০০:০৭:৩৩ || আপডেট: ২০২০-০৬-২৬ ০০:০৭:৩৭

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া ৩১ ভাগ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর করোনা সম্পর্কে কোন ধারণা নেই আর বেশিরভাগ মানুষ করোনা সম্পর্কে ভ্রান্ত ধারণা পোষণ করে বলে সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থার (স্কাস) এক জরিপ প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে আসে।বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে ‘মিট দ্যা প্রেস’ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ওই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

কেএনএইচ জার্মানির সহযোগিতায় সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থা (স্কাস) ওই জরিপ পরিচালনা করে। মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে উত্থাপিত প্রতিবেদনে ৫ দফা সুপারিশ তুলে ধরা হয়েছে।

জরিপে বলা হয়, ভয়াবহ করোনা ঝুঁকিতে আছে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী। বিশেষ করে নারী ও শিশুদের জন্য ঝুঁকি বেশি। যেহেতু করোনা সম্পর্কে ৩১ ভাগ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর কোন ধারণা নেই তাই এই অবস্থায় তাদের ঝুঁকি কমাতে সচেতনতামূলক কার্যক্রম গ্রহণ করা জরুরি।

জরিপের প্রতিবেদন তুলে ধরেন স্কাস চেয়ারম্যান জেসমিন প্রেমা। বক্তৃতা করেন দাতা সংস্থা ‘কে এন এইচ জার্মানির কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর মারুফ রুমি মমতাজ, ডিআরইউ সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদ, ‘কে এন এইচ জার্মানির ন্যাশনাল কো-অডিনেটর মাটিলদা টিনা বৈদ্য, প্রোগ্রাম কো-অডিনেটর মনিরুজ্জামান মুকুল প্রমুখ।

জরিপে আরও বলা হয়, করোনা সম্পর্কে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর মধ্যে যে ভ্রান্ত ধারণা বিদ্যমান তা দূরীকরণে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জোরালো ভূমিকা রাখা প্রয়োজন। সর্বোচ্চ গুরুত্ব প্রদান সাপেক্ষে ক্যাম্পভিত্তিক সকল কার্যক্রমে এনজিও ব্যুরোর মাধ্যমে কোভিড-১৯ সম্পর্কে সচেতনতামূলক কার্যক্রম নিশ্চিত করতে হবে। সর্বোপরি কোভিড-১৯ প্রতিরোধে তথ্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে স্থানীয় ও জাতীয় গণমাধ্যমকে সর্বোচ্চ কাজে লাগানোর উদ্যোগ নিতে হবে।
বিশ্বব্যাপী ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি করেছে করোনাভাইরাস। রোহিঙ্গা ক্যাম্প জনবহুল হওয়ায় সেখানে ঝুঁকি বেশি থাকবে এটাই স্বাভাবিক। এই ঝুঁকি মোকাবিলায় সচেতনতার বিকল্প নেই। সচেতনতা সৃষ্টিসহ জরিপ প্রতিবেদনের সুপারিশ বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট সকলের কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানান কে এন এইচ জার্মানির কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর মারুফ রুমি মমতাজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *