চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২

কাইছার হামিদ

প্রদীপ ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদুকের মামলা

প্রকাশ: ২০২০-০৮-২৩ ১৮:১৬:৩২ || আপডেট: ২০২০-০৮-২৩ ১৮:১৬:৩৯

মেজর (অব:) সিনহা মো. রাশেদ হত্যা মামলায় টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকি করণের বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত অবৈধ সম্পদ অর্জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

আজ রবিবার (২৩ আগস্ট) বিকাল ৪টায় দুদক জেলা কার্যালয় -চট্টগ্রাম ২ এর সহকারী পরিচালক রিয়াজ উদ্দিন বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

রিয়াজ উদ্দিন জানান, প্রায় ৪ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে বরখাস্তকৃত টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ এবং তার স্ত্রী চুমকি কারণের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে মামলা দায়ের করেছে দুর্ণীতি দমন কমিশন (দুদক)। প্রদীপের সম্পদ অনুসন্ধান এবং প্রাথমিক তদন্ত দুদকের কেন্দ্রীয় অনুমোদন প্রাপ্তির পর এই মামলাটি দায়ের করা হয়েছে।

দুদক সূত্রে জানা যায়, প্রদীপ ও তার স্ত্রী অসৎ উদ্দেশে একে অপরের সহযোগিতায় ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিপুল পরিমাণ সম্পদের মালিক হয়েছেন। দুর্নীতি দমন কমিশনে দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে ১৩ লাখ ১৩ হাজার ১৭৫ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করে এবং তিন কোটি ৯৫ লাখ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের বিষয়ে মিথ্যা তথ্য প্রদান করে। 

এর আগে ওসি প্রদীপ কুমার ও তার স্ত্রীর অবৈধ সম্পদের খোঁজে অনুসন্ধানে নামে দুদক। সেই অনুসন্ধানে এই দুইজনের নামে-বেনামে জ্ঞাত-আয় বহির্ভূত সম্পদ থাকার প্রমাণ মিলেছে। এর মধ্যে স্ত্রীর নামে চট্টগ্রাম মহানগরে ছয়তলা বাড়ি, প্লট, ফ্ল্যাট, একাধিক গাড়ি ও অন্যান্য সম্পদের প্রমাণ পাওয়া যায়।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) তদন্তে বেরিয়ে আসে, টেকনাফ থানার সদ্য বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ অবৈধ অর্থে চট্টগ্রামে গড়েছেন সম্পদের পাহাড়। স্ত্রী চুমকির নামে করেছেন মৎস্য খামার, বিলাসবহুল বাড়ি-গাড়ি, বিপুল পরিমাণ কৃষি-অকৃষি জমি। স্ত্রীর নামে তিনি ব্যাংকে রেখেছেন বিপুল পরিমাণ টাকা। বিদেশে টাকা পাচারের অভিযোগের সত্যতা মিলেছে তার বিরুদ্ধে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *