চট্টগ্রাম, , বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০

admin

বাঁশখালীতে দুই বাসের মুখোমুখি সংষর্ষ: আহত কমপক্ষে ৩৫

প্রকাশ: ২০২০-০৯-১৫ ২২:৪২:১০ || আপডেট: ২০২০-০৯-১৫ ২২:৪২:১৭

বাঁশখালী প্রতিনিধি|
চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই বাসচালক, সহকারীসহ অন্তত ৩৫ জন যাত্রী আহত হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬টার দিকে পিএবি সড়কের সাধনপুর দমদমা দিঘী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত ৮ জনকে নগরীর চমেক হাসপাতালে ও অন্যান্যদের স্থানীয় পল্লী চিকিৎসকদের মাধ্যমে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
ঘটনাস্থলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোমেনা আকতার, বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল করিম মজুমদার, চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন চৌধুরী (খোকা) ও বাঁশখালী ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা উপস্থিত থেকে দুর্ঘটনাকবলিত আহত যাত্রীদের উদ্ধার তৎপরতা চালিয়েছেন।

বাস যাত্রী ও স্থানীয়রা জানান, চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে যাওয়া পেকুয়া-মগনামা অভিমুখী যাত্রীবাহী সানালাইন সার্ভিস ও পেকুয়া উপজেলার টইটং থেকে চট্টগ্রামের বহদ্দারহাট অভিমুখী যাত্রীবাহী স্পেশাল সার্ভিস বাস দু’টি দমদমার দিঘী এলাকায় পৌঁছালে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয়রা দুর্ঘটনায় আহত যাত্রীদের উদ্ধারে তৎপরতা চালান।

দুর্ঘটনাকবলিত বাস দুটিতে অন্তত ৫৫ জন যাত্রী ছিল। দুর্ঘটনায় সানলাইন বাস চালক সাধনপুর ইউনিয়নের মোহাম্মদ ফারুক (৪০), স্পেশাল সার্ভিস নাজ এক্সপ্রেস চালক মোহাম্মদ দেলোয়ার (৩৫), সহকারী মামুন (৩২), যাত্রী পশ্চিম গুনাগরী গ্রামের মোক্তার আহমদ (৫৫), বাঁশখালী ডিগ্রি কলেজের অধ্যাপক জহিরুল কাদের জাবেদ (৪৫), কোকদ-ী গ্রামের পপি চক্রবর্তী (৪৭), জলদী গ্রামের রায় গোপাল শীল (৫৪), গ্রামীণ ব্যাংক, সাধনপুর শাখার ম্যানেজার সরওয়ার কামাল (৫২), গণ্ডামারার শিশু রায়হান (১০)। অন্যান্য আহতদের নাম-ঠিকানা পাওয়া যায়নি। তবে আহতদের মধ্যে মৃত্যুর সম্ভাবনা রয়েছে বলে প্রত্যক্ষদর্শী ও বাস যাত্রীরা জানিয়েছেন।
ঘটনাাস্থলে থাকা প্রত্যক্ষদর্শী রশিদ আহমদ বলেন, দুটি বাসে মুখোমুখি সংঘর্ষের সময় বিকট শব্দ হয়েছে। এ সময় শত শত মানুষ এগিয়ে এসে আহতদেরকে উদ্ধার তৎপরতা চালায়।

সাধনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন চৌধুরী (খোকা) বলেন, বাস দুর্ঘটনার পর খবর পেয়ে আমি স্থানীয় জনতা, চৌকিদার-দফদার নিয়ে আহতদেরকে উদ্ধার তৎপরতা চালাতে থাকি। আহতদের মধ্যে ৬ জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গুরুতর আহত সানলাইন বাসের চালক মোহাম্মদ ফারুককে গাড়ির সামনের অংশ কেটে উদ্ধার করা হয়েছে। তার চিকিৎসার ব্যবস্থা চলছে।

বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, বাস দুর্ঘটনার খবর পেয়ে উদ্ধার তৎপরতার মাধ্যমে আহতদেরকে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। বাস সংঘর্ষের ঘটনায় আহতদের মধ্যে কোন যাত্রী নিহতের সংবাদ পাওয়া যায়নি। তবে আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *