চট্টগ্রাম, , রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

admin

প্রকাশিতব্য ‘প্রতিদিনের বাংলাদেশ’ পত্রিকায় সম্পাদক হিসেবে যোগ দিলেন মুস্তাফিজ শফি

প্রকাশ: ২০২২-০৪-০৮ ০১:১৫:০২ || আপডেট: ২০২২-০৪-০৮ ০১:১৫:০৪

বীর কণ্ঠ ডেস্ক|
রংধনু গ্রুপের প্রকাশিতব্য দৈনিক ‘প্রতিদিনের বাংলাদেশ’ পত্রিকায় সম্পাদক হিসেবে যোগ দিয়েছেন সাংবাদিক ও লেখক মুস্তাফিজ শফি। ১ এপ্রিল আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

গত ২৮ মার্চ রংধনু গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ রফিকুল ইসলামের উপস্থিতিতে মুস্তাফিজ শফির হাতে নিয়োগপত্র তুলে দেন পত্রিকাটির প্রকাশক ও রংধনু গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাউসার আহমেদ অপু।

সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর ‘প্রতিদিনের বাংলাদেশ’ পত্রিকাকে একটি আধুনিক ও দায়িত্বশীল গণমাধ্যম হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন মুস্তাফিজ শফি। এ বিষয়ে তিনি গণমাধ্যম-সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

মুস্তাফিজ শফি এর আগে গত তিন বছরের বেশি সময় দৈনিক সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮৮ সালে সাপ্তাহিক সিলেট সংবাদ ও লন্ডনের সাপ্তাহিক সুরমায় লেখালেখির মধ্য দিয়ে মফস্বল পর্যায়ে তার সাংবাদিকতা শুরু। জাতীয় পর্যায়ে সাংবাদিকতা শুরু ১৯৯৪ সালে। গত প্রায় ২৮ বছরে কাজ করেছেন আজকের কাগজ, দৈনিক মানবজমিন, প্রথম আলো, আমার দেশ, কালের কণ্ঠ, সমকাল প্রভৃতি পত্রিকায়। এর মধ্যে তিনি প্রথম আলোতে ডেপুটি চিফ রিপোর্টার, সমকালে ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ছাড়াও বার্তা সম্পাদক, নির্বাহী সম্পাদক এবং কালের কণ্ঠে নির্বাহী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

দেশে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় জাতীয় পর্যায়ে যেসব প্রতিযোগিতামূলক পুরস্কার রয়েছে মুস্তাফিজ শফি তার বেশিরভাগই পেয়েছেন। এরমধ্যে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি), ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি, রোটারি ইন্টারন্যাশনাল, লায়ন্স ক্লাব ও ইউনেস্কো ক্লাব মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড উল্লেখযোগ্য।

সৃজনশীল লেখালেখিতেও সক্রিয় রয়েছেন তিনি। এক্ষেত্রে রয়েছে তার নিজস্ব পাঠক গোষ্ঠীও। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে তার সম্পাদিত তিনটি বই— ‘মুজিব কেন জরুরি’, ‘বহুমাত্রিক বঙ্গবন্ধু’ ও ‘ভাষণ অথবা একটি কবিতার গল্প’। বই তিনটির ভূমিকা লিখেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। মহান বিপ্লবী চে গুয়েভারার রাজনীতি ও জীবন নিয়ে লিখেছেন আলোচিত গ্রন্থ ‘চে’। ‘পড় তোমার প্রেমিকার নামে’, ‘দহনের রাত’, ‘মধ্যবিত্ত কবিতাগুচ্ছ’, ‘মায়া মেঘ নির্জনতা’, ‘কবির বিষণ্ন বান্ধবীরা’ তার উল্লেখযোগ্য কবিতার বই। উপন্যাস ‘ঈশ্বরের সন্তানেরা’, ‘জিন্দা লাশ অথবা রমেশ ডোম’, ‘স্পর্শ’। গল্প ‘মাধবী কিংবা বনলতার শেষ বোঝাপড়া’। তিনি সক্রিয় রয়েছেন শিশু সাহিত্যেও। ‘ভূতকল্যাণ সমিতি’ গ্রন্থের জন্য পেয়েছেন সিটি ব্যাংক-আনন্দআলো সাহিত্য পুরস্কার। আর মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক ‘একাত্তরের বিজয়িনী’ গ্রন্থের জন্য পেয়েছেন মোবাইল ফোন অপারেটর রবির সম্মাননা।
সূত্র- বাংলা ট্রিবিউন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *