চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

admin

চট্টগ্রামে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় জামিন পেলেন ১০ শিক্ষক

প্রকাশ: ২০১৭-০৯-২৬ ১৩:৩৫:২৮ || আপডেট: ২০১৭-০৯-২৬ ১৩:৩৫:২৮

সুজন দাশ, বাঁশখালী, চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় ১৩ শিক্ষকের মধ্যে ১০ জনের জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত। বাকী তিনজনের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হয়েছে।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে এক ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে তুলনা করে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র প্রণয়নের অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা হয়েছিল।

মঙ্গলবার (২৬ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রামের জেলা ও দায়রা জজ হেলাল চৌধুরী এই রায় দিয়েছেন।

বিবাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবু জানান, প্রশ্নপত্র প্রণয়নকারী বাঁশখালী বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক (বৌদ্ধ ধর্ম) দুকুল বড়ুয়া (৪৫), বাঁশখালীর নাসেরা খাতুন আর কে উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি তাহেরুল ইসলাম (৫৫) ও সাধারণ সম্পাদক রায়ছটা প্রেমাসিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ মিয়ার (৫৭) জামিন নামঞ্জুর করেছেন আদালত।

বাকী ১০ শিক্ষকের জামিন আদালত মঞ্জুর করেছেন। এরা হলেন-আনোয়ারা উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও মাহাতা পাঠানিকোঠা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম (৫২) এবং সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাদল চন্দ্র দাশ (৫৫)। পটিয়া উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও মোজাফফরাবাদ এন জে উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ ইউছুপ এবং সাধারণ সম্পাদক পটিয়া হাইদগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক শ্যামল কান্তি দে।

সাতকানিয়া উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও বাজালিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অজিত কারণ (৫৮) ও সাধারণ সম্পাদক ছমদরপাড়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক এম ওয়াইজ উদ্দিন (৪৯)। বোয়ালখালী উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও আজগর আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আলী (৪২) এবং সাধারণ সম্পাদক ও কধুরখীল উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আমির হোসেন (৪২)। চন্দনাইশ উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও কেশুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিজন ভট্টাচার্য্য এবং সাধারণ সম্পাদক ও বরমা ত্রাহিমেনকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এ এইচ এম সৈয়দ হোসেন।

আদালত সূত্রে ‍জানা গেছে, গত বছর বাঁশখালী উপজেলায় মাধ্যমিক স্কুলের নবম শ্রেণির অর্ধবার্ষিক পরীক্ষায় বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় বিষয়ে প্রণীত একটি প্রশ্ন নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়। ২০১৬ সালের ১৭ জুলাই অনুষ্ঠিত এই পরীক্ষায় বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে বাঁশখালীর গণ্ডামারার বিএনপি নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান লিয়াকত আলীর তুলনা করা নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

এই ঘটনায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন নিয়ে গত ১৪ জুন বাঁশখালী থানার এসআই মো.নূরুল আনোয়ার বাদি হয়ে ১৩ শিক্ষকের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা দায়ের করেন।

মামলা দায়েরের পর ১৩ শিক্ষক হাইকোর্ট থেকে আট সপ্তাহের আগাম জামিন লাভ করেন। গত ২৩ আগস্ট আগাম জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় নিম্ন আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন। তখন আদালত ১৩ শিক্ষকের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এর এক মাস পর মঙ্গলবার ১০ শিক্ষক জামিন লাভ করলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *