চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

admin

চকরিয়ায় বাড়ি থেকে ডেকে গাড়ির চালককে হত্যা :আটক-৩

প্রকাশ: ২০১৭-১০-০৮ ১৮:০৯:১১ || আপডেট: ২০১৭-১০-০৮ ১৮:০৯:১১

মিজবাউল হক,চকরিয়া অফিস:  চকরিয়ায় বাড়ি থেকে ডেকে আজিজুর রহমান (৩৫) প্রকাশ রাইফেল আজিজ নামের এক গাড়ির চালককে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। রবিবার ভোর ৫টার দিকে পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডস্থ নিজপানখালীর মৌলভীরকুম এলাকায় হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। আজিজ মৌলভীরকুম এলাকার মৃত ধলা মিয়ার ছেলে। এঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন যুবককে আটক করেছে পুলিশ। 

আটককৃতরা হলেন-চকরিয়া পৌরসভার নিজপানখালী গ্রামের শফিউল আলমের ছেলে আব্বাছ মিয়া (৩০), মৃত ছিদ্দিক আহমদের ছেলে মোহাম্মদ হোছাইন প্রকাশ পুতিয়্যা (২৫) ও নুর আহমদের ছেলে মিজানুর রহমান প্রকাশ মনু (২৫)।

 

পুলিশ জানায়, রবিবার ভোর রাতে নিজপানখালী গ্রামের আমজাদ হোসেনের বাড়িতে চুরি করতে যায় আজিজ ও মনু। একপর্যায়ে আমজাদ হোসেনের পরিবারের লোকজন ঘরে চোর ঢুকেছে জানতে পেরে চোরদের ধাওয়া করে। এসময় মনু পালিয়ে গেলেও আজিজকে মোবাইলসহ ধরে পেলে। পরে তাকে চুরি ও বাটল দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে পুতিয়্যা ও আবছার মিয়াসহ আমজাদ হোসেনের পরিবারের লোকজন। এতে আজিজ গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে নিয়ে আসে তারা। হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক আজিজকে মৃত ঘোষণা করেন। এসময় পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

 

আজিজের স্বজনরা জানান, আজিজকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। খুনিরা তাকে বাড়ি ডেকে একটি ফার্নিসারের দোকানে বাটল ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

স্থানীয়রা জানান, আজিজের বিরুদ্ধে নানা অপরাধ ও অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে।

 

তারা বলেন, গত ১৬ সেপ্টেম্বর চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলমের গ্রামের বাড়ি থেকে নুরুল হোছন (৪৫) নামের এক কেয়ারটেকারের লাশ উদ্ধার করা হয়। আজিজ কেয়ারটেকার নুরুল হোছনকে শ্বাষরোধ করে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো.মিজানুর রহমান বলেন, বিষয়টি জানতে পেরে থানার এসআই সুকান্ত চৌধুরীর নেতৃত্বে একদল পুলিশ হাসপাতালে গিয়ে পুতিয়্যা ও আবছারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে। সেখান থেকে চালক আজিজের লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আজিজের সহযোগী মিজানুর রহমান প্রকাশ মনুকে আটক করে।

 

চকরিয়া থানার এসআই সুকান্ত চৌধুরী বলেন, প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্টে মৃতদেহের শরীরে মারধরের দাগ রয়েছে এবং বুকে ও নাভির পাশে বাটলের দিয়ে আঘাতের চিহৃ রয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *