চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

admin

চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স একশত শয্যায় উন্নীত করা হবে

প্রকাশ: ২০১৭-১০-১৮ ২০:১১:২৭ || আপডেট: ২০১৭-১০-১৮ ২০:১১:২৭

 

মিজবাউল হক,চকরিয়া অফিস:  

চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপনা কমিটির মাসিক সভায় কক্সবাজার-(চকরিয়া-পেকুয়া) আসনের সাংসদ আলহাজ¦ মোহাম্মদ ইলিয়াছ বলেছেন; বর্তমান সরকার স্বাস্থ্য বান্ধব সরকার, সরকার প্রতিটি মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর। চকরিয়া উপজেলা একটি বড় উপজেলা। তাছাড়া বান্দরবানের লামা, আলীকদম, থানছি উপজেলা ও কক্সবাজারের পেকুয়া, কুতুবদিয়া, মহেশখালী উপজেলার অনেক লোকজন চকরিয়ায় এসেই চিকিৎসা সেবা নিয়ে থাকে। এসব কারণে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগির অত্যাধিক চাপ রয়েছে। কিন্তু ৫০ শয্যার এই হাসপাতালে এতো রোগির সেবাপ্রদান দূরূহ হয়ে উঠেছে। 

 

এ অবস্থা থেকে উত্তরনের জন্য চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিকে ১শত শয্যায় উন্নীত করণের দাবী দীর্ঘদিনের। আমরা এই গণদাবী বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছি। চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ৫০ শয্যা থেকে ১শত শয্যায় উন্নীত হবে। হাসপাতালের নতুন ভবন নির্মাণ, বাস ভবণ নির্মাণ, পুরাতন ভবন গুলো সংস্কার, ড্রেইনেজ ব্যবস্থা সংস্কারসহ এ হাসপাতালের আরও বেশ কিছু উন্নয়ন মূলক কর্মকা-ের জন্য প্রায় ২৮ কোটি টাকা বরাদ্দ নির্ধারণ করা হয়েছে। নতুন নুতন কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণ করা, পুরাতনগুলো সংস্কারসহ নানা পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়েছে। গতকাল বুধবার ১৮ অক্টোবর দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের হল রুমে ব্যবস্থাপনা কমিটির মাসিক সভায় কক্সবাজার-১ চকরিয়া-পেকুয়া আসনের এমপি, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা আলহাজ¦ মোহাম্মদ ইলিয়াছ এসব কথা জানান। সভায় সভাপতিত্ব করেন এমপি আলহাজ¦ মোহাম্মদ ইলিয়াছ।

 

বক্তব্য রাখেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ শাহবাজ, ডাঃ মুজিবুল হক, আর.এম.ও ডাঃ শোভন দত্ত, ওসি (তদন্ত) মিজানুর রহমান, ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আবছার, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাজী বশিরুল আলম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি সরওয়ার আলম, জাতীয় পার্টির উপজেলা সভাপতি আনোয়ারুল এহেছান বুলু, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম, চেয়ারম্যান আজিমুল হক, এনজিও প্রতিনিধি মোঃ নোমান, পৌর প্যানেল মেয়র মোঃ আইয়ুব, ডাঃ খায়রুল আলম প্রমুখ। এ সভায় স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর কক্সবাজারের সহকারী প্রকৌশলী মোঃ মোর্শেদুল আলম আগামী এক বছরের মধ্যে প্রায় ২৮ কোটি টাকার এই উন্নয়ন প্রকল্পটির কাজ শেষ করা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এমপি আলহাজ¦ মোহাম্মদ ইলিয়াছ আরও বলেছেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে এ সরকার বড় মানবিকতার পরিচয় দিয়েছে।

 

কিন্তু যে হারে রোহিঙ্গারা আমাদের দেশে ঢুকে যাচ্ছে তা উদ্বেগ জনক। এখানে যারা এসেছে তারা পর্যাপ্ত ত্রাণ, চিকিৎসা সেবাসহ নানা সুবিধা পেয়েছে। অনেকের এক বছরের খাদ্য মজুদ হয়ে গেছে, অনেক আরামে আছে। এ খবরে আরও নতুন করে রোহিঙ্গা এদেশে ঢুকে পড়ছে। কক্সবাজারে আমাদের জনসংখ্যার চেয়ে রোহিঙ্গারা সংখ্যায় বেশী হয়ে যাচ্ছে। তাছাড়া তারা নানা অপরাধে জড়াতে পারে, সেজন্য আমাদের সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। তাদেরকে ফিরিয়ে নেয়ার জন্য আমাদের সরকার কুটনৈতিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এ ক্ষত্রে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কেও মিয়ানমারের উপর আরও বেশী চাপ সৃষ্টি করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *