চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

admin

ফটিকছড়িতে ভুল চিকিৎসায় মা-সন্তানের মৃত্যু, হাসপাতাল ভাঙচুর

প্রকাশ: ২০১৭-১০-১৮ ১৬:২২:২৮ || আপডেট: ২০১৭-১০-১৮ ১৬:২২:২৮

বীর কন্ঠ ডেস্ক:

চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে আল-নূর নামে একটি হাসপাতালে ভুল অপারেশনে মা ও নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা ওই হাসপাতালে ভাঙচুর করেছে।

 

মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর) রাত ৯টায় এ ঘটনা ঘটে। ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ইউসুফ মিয়া জানান বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ফটিকছড়ির হারুয়ালছড়ি ইউনিয়নের তালতলা এলাকার রহমত উল্লাহর স্ত্রী শিরু আকতারকে (২৫) মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আল-নূর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিকেল আড়াইটার দিকে তাকে সেখানে সিজার অপারেশন করা হয়। পরে বিকেল ৩টার পর রোগীর অবস্থা খারাপ বলে দ্রুত চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে যাওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক জানায়, রোগীকে ভুল অপারেশন করা হয়েছে। তাই মা ও শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

 

পরে রোগীর আত্মীয়-স্বজনরা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। তারা রাত ৯টায় আল-নূর হাসপাতালে বিক্ষোভ মিছিল করে মা-শিশুর হত্যার বিচার দাবি করে। এক পর্যায়ে ক্ষুব্ধ জনতা হাসপাতালে ভাঙচুর চালায়। খবর পেয়ে ফটিকছড়ি থানার পুলিশ এসে দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

 

নিহতের ভাই মো. কামাল উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, ‘আমার বোনকে ভুল অপারেশন করে হত্যা করেছে আল-নূর হাসপাতাল। তারা মা-শিশুর মৃত্যুর পর মাথা কাটা শিশুটি মায়ের কাপড়ের ভিতর লুকিয়ে দ্রুত চমেক হাসপাতালে নিতে হবে বলে আমাদের পাঠিয়ে দেয়। আমি আমার বোন ও নবজাতক শিশুর হত্যার বিচার চাই।’

 

এ ব্যাপারে আল-নূর হাসপাতালে সিজার অপারেশনের ওই ডাক্তার অরবিন্দ চাকমা বলেন, ‘রোগীটি অজ্ঞান করানোর পর আর জ্ঞান ফেরেনি। সম্ভবত ওই রোগীর হার্টেও সমস্যা ছিল। অপারেশন ঠিক ছিল।’

 

এ ব্যাপারে ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবু ইউসুপ মিয়া বলেন, ‘ক্ষুব্ধ জনতা হাসপাতালে ভাঙচুর করার খবর পেয়ে দ্রুত এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। বর্তমানে হাসপাতালে পুলিশ অবস্থান করছে।’ সূত্র – সিটিজি টাইমস

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *