চট্টগ্রাম, , বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

admin

সুখী সমৃদ্ধশালী দেশ গড়তে মেধাবীদের অবদান অনস্বীকার্য: আলহাজ্ব মোঃ লোকমান হাকিম

প্রকাশ: ২০১৭-১০-২০ ২০:১৮:২১ || আপডেট: ২০১৭-১০-২০ ২০:১৮:২১

মোঃ কামরুল ইসলাম মোস্তফা, চন্দনাইশ প্রতিনিধি :

দক্ষিণ চট্টগ্রামের বাণিজ্যিক উপ-শহর, ঐতিহাসিক ও প্রাচীণতম জনপদ দোহাজারী পৌরসভার দিয়াকুল সানোয়ারা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের জেএসসি এবং তপোবন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিএসসি-২০১৭ইং সনের পরীক্ষার্থীদের বিদায়ী সংবর্ধনা, দোয়া মাহফিল ও শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠান শুক্রবার (২০ অক্টোবর) সকালে তপোবন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সম্পন্ন হয়েছে। বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা উত্তর দিয়াকুল ইউনিট শাখার উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মরহুম আলহাজ্ব আবুল কাশেম (লেদু) চেয়ারম্যান স্মৃতি ফাউন্ডেশন এবং দিয়াকুল সানোয়ারা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজ পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ লোকমান হাকিম। 

 

বিশেষ অতিথি ছিলেন দিয়াকুল সানোয়ারা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক মাওলানা মোঃ নাজিম উদ্দীন, দোহাজারী জামিজুরী আঃ রহমান উচ্চ বিদ্যালয় ও দোহাজারী জামিজুরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের অভিভাবক সদস্য মোঃ আমির হোসেন, সাংবাদিক এস.এম রাশেদ, তপোবন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুধীর চন্দ্র মল্লিক, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা দোহাজারী পৌরসভা শাখা সাধারণ সম্পাদক ইমরান হোছাইন ফারুকী, সমীর উদ্দীন খলিফা, মোঃ রিপনুজ্জামান।

 

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা দোহাজারী পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড শাখা সভাপতি আব্দুল হাফেজের সভাপতিত্বে ও কামরুল ইসলাম মোস্তফা’র সঞ্চালনায় প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা দোহাজারী পৌরসভা শাখা সভাপতি মোহাম্মদ সোলায়মান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন শফিকুল ইসলাম রানা। পরীক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বিষয়ভিত্তিক দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন, বর্ণমালা পরিষদ সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আনোয়ার হোছাইন হৃদয়, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা উত্তর দিয়াকুল ইউনিট শাখা সভাপতি মোঃ নুর হোছাইন, সাধারণ সম্পাদক রাকিব রায়হান, এহছান হাবিব, খোরশেদ, তৌহিদুল ইসলাম, রিয়াদ হোসেন, শাকিব, রমজান আলী, রাসেল প্রমুখ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে আলহাজ্ব মোহাম্মদ লোকমান হাকিম বলেন, “যে জাতি যত বেশি শিক্ষিত, সে জাতি তত বেশি উন্নত। একটি সুখী সমৃদ্ধ দেশ গড়তে মেধাবীদের অবদান অনস্বীকার্য। ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তোমরাই আগামী দিনের কান্ডারী। তোমাদের হাত ধরে স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়ন হবেই হবে।

 

তোমাদের মধ্য থেকেই তৈরী হবে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষক, এম.পি, মন্ত্রী, সচিব। এমনকি পুলিশ অফিসার, সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর অফিসার হয়ে দেশ সেবায় নিয়োজিত হবে তোমাদের কেউ কেউ। সুতরাং তোমাদের ভাল করে পড়াশোনা করতে হবে। সর্বোপরি মানুষের মত মানুষ হতে হবে। পরীক্ষায় ভাল ফলাফল অর্জনের পিছনে কঠোর অধ্যবসায় ও নিয়মানুবর্তিতার কোন বিকল্প নেই। পরে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ, দোয়া মাহফিল ও পরীক্ষার্থীদের সফলতা কামনায় বিশেষ মোনাজাতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *