চট্টগ্রাম, , রোববার, ২৬ জুন ২০২২

জাহেদুল হক আনোয়ারা প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম-১৩ আসনে ধানের শীষ পেতে ৯ জনের লড়াই

প্রকাশ: ২০১৮-১১-২৬ ১২:৪৯:৫৫ || আপডেট: ২০১৮-১১-২৬ ১২:৪৯:৫৫

আনোয়ারা প্রতিনিধি:

চট্টগ্রাম-১৩ (আনোয়ারা-কর্ণফুলী) আসনে ভোটযুদ্ধের আগেই ধানের শীষের জন্য মনোনয়ন লড়াইয়ে নেমেছেন ৯ জন প্রার্থী। এই আসনে বিএনপির দু‘পক্ষের বিরোধ থাকায় শেষ পর্যন্ত কে পাচ্ছেন মনোনয়ন তা নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। তবে যিনি দলীয় মনোনয়ন পাবেন তার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবেন বলে জানান দলীয় নেতারা।

 

ধানের শীষ প্রতীকের জন্য দলীয় মনোনয়ন ফরম নিয়ে জমা দিয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য সরওয়ার জামাল নিজাম, জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আলী আব্বাস,সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মুসা মাহমুদ, জেলা বিএনপি নেতা ব্যবসায়ী মোস্তাফিজুর রহমান,আবু মোহাম্মদ নিপার,চট্টগ্রাম কর আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি আবু মুছা,হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান কল্যাণ ফ্রন্টের চট্টগ্রাম জেলার সদস্য সচিব আর কে দাশ রুপু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সম্পাদক সালাহ উদ্দিন সুমন ও জেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক লোকমান শাহ।

 

এদিকে,শেষ পর্যন্ত নির্বাচনী লড়াইয়ে টিকে থাকতে আসনপ্রতি ৩ জন করে প্রার্থী দেওয়ার কৌশল নিয়ে এগুচ্ছে বিএনপি। এজন্য মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার নেয়ার পর সবাইকে মাঠে কাজ করার জন্যও দলীয় নির্দেশনা দেয়া হয়। গণপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশ অনুযায়ী কোনো দল চাইলে এক আসনে একাধিক ব্যক্তির দলীয় মনোনয়ন ফরম জমা দিতে পারবে। তবে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের আগে দল থেকে কাকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে তা জানাতে হবে। তখন দলীয় মনোনীত ব্যক্তি ছাড়া অন্যদের প্রার্থীতা স্বাভাবিকভাবে বাতিল হয়ে যাবে। সেক্ষেত্রে মনোনয়নযুদ্ধে সমান অবস্থানে রয়েছেন সরওয়ার জামাল নিজাম ও মোস্তাফিজুর রহমান।

 

দলীয় নেতাকর্মীরা বলেন,বিএনপি থেকে কে পাচ্ছেন মনোনয়ন। কে প্রার্থী হলে নির্বাচনে লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি। এ নিয়ে সর্বত্র চলছে হিসাব-নিকাশ। বিএনপির একাংশ বলছে, মোস্তাফিজুর রহমান প্রার্থী হলে বিজয় সুনিশ্চিত হবে। অপর অংশ বলছে,এই আসনে সরওয়ার জামাল নিজামের বিকল্প নেই। তিনি এই আসনের তিনবার সংসদ সদস্য ছিলেন। বিএনপির সমর্থকেরা মনে করেন,মনোনয়ন নিয়ে নিজামের সঙ্গে মোস্তাফিজের মূল লড়াই হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *