চট্টগ্রাম, , রোববার, ৯ মে ২০২১

নীরব জসীম ডেস্ক কন্ট্রিবিউটর

লোহাগাড়ার আব্দুল মালেকসহ ৩ জনকে হাটহাজারীতে ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনি

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-১৬ ২১:১৫:৩৩ || আপডেট: ২০১৯-০৭-১৬ ২১:৩৯:৫৩

নিউজ ডেস্ক :  চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে ছেলে ধরা সন্দেহে তিন ব্যক্তিকে গণপিটুনি দিয়েছে স্থানীয় জনতা। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার ছিপাতলী ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

গণধোলাইয়ের শিকার তিনজন হলেন- চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়া উপজেলার আব্দুল মালেক (৬০), নুর কবির (২৮) ও নুর ইসলাম (৬০)।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সকালে একটি প্রাইভেটকারে করে ওই তিন ব্যক্তি এলাকায় আসেন। অপরিচিত হওয়ায় তাদের দেখে স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ হয়। এলাকায় আসার কারণ জানতে চাইলে তিনজনের কেউ সদুত্তর দিতে পারেননি। পরে তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এতে স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ আরও বাড়ে। একপর্যায়ে উপস্থিত লোকজন তিনব্যক্তিকে গণপিটুনি দেয়।

খবর পেয়ে স্থানীয় ছিপাতলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আহসান ও হাটহাজারী থানা-পুলিশের সদস্য ঘটনাস্থলে আসেন। তারা উত্তেজিত জনতার হাত থেকে সন্দেহভাজন তিন ব্যক্তিকে উদ্ধার করেন। প্রথমে তাদের হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। অবস্থা গুরুতর হলে পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আহসান বলেন, এক নারীকে বোকা বানিয়ে নকল স্বর্ণের বার দিয়ে ছয় (৬) হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। পরে পালোনোর সময় ছেলে ধরা সন্দেহে শত শত মানুষ তাদের ধরে গণপিটুনি দিয়েছে। তিন ব্যক্তি মূলত প্রতারক। তারা গ্রামের সহজ-সরল মানুষের কাছ থেকে কৌশলে স্বর্ণসহ বিভিন্ন মূল্যবান জিনিসপত্র হাতিয়ে নেয়ার জন্য এলাকায় এসেছিলেন।

হাটহাজারী থানার ওসি বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ছিপাতলী এলাকায় ছেলে ধরা সন্দেহে তিন ব্যক্তিকে জনতা গণপিটুনি দিয়েছে। গণপিটুনির শিকার তিনজনই মেডিকেলে চিকিৎসাধীন। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *