চট্টগ্রাম, , বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯

নীরব জসীম ডেস্ক কন্ট্রিবিউটর

উখিয়ায় শেড নামে এনজিওর গুদামে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ধারালো অস্ত্র উদ্ধার

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-০৬ ০০:০৭:৩৬ || আপডেট: ২০১৯-০৯-০৬ ০০:০৭:৫৬

নিউজ ডেস্ক : কক্সবাজারের উখিয়ায় এনজিও সংস্থা ‘মুক্তি’র নির্দেশে তৈরিরত ৬শ’ পিস ধারালো অস্ত্র উদ্ধারের ১০ দিনের ব্যবধানে উপজেলার মালভিটাপাড়াস্থ শেড নামে একটি এনজিওর গুদামে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করেছে উপজেলা প্রশাসন। তবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বলছে, আইওএম প্রদত্ত এসব অস্ত্র কৃষি কাজে ব্যবহারে স্থানীয়দের বিতরণের জন্য মজুদ রাখা হয়েছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, এনজিওর তৈরি ও সরবরাহ করা বিভিন্ন প্রকার অস্ত্র স্থানীয়দের পক্ষে একসময় বুমেরাং হতে পারে। এ ঘটনা নিয়ে এলাকায় তোলপার সৃষ্টি হয়েছে।

উখিয়ার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী মেজিস্ট্রেট মো. ফখরুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদরের মালভিটাপাড়ায় এনজিও সংস্থা শেডের ভাড়াকৃত গুদামে অভিযান চালানো হয়। এ সময় পুলিশের সহযোগীতায় রাম দা ১৭শ’ পিস, হাতুড়িসহ বেঞ্চা ২২শ’, হাতুড়ি (লোহার তৈরি হেমার) ১১শ’, স্টিলের প্লাস ১২শ’, হাতকরাত ১২শ’ ও ১ হাজার পিস লাঠি উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়াও রয়েছে ছুরি, চাপাতি, তার-কড়াইসহ আনুসাঙ্গিক যন্ত্রপাতি। 

তিনি বলেন, এনজিও সংস্থার তৈরি ও মজুদ রাখা এসব জিনিসপত্র কি কাজে ব্যবহৃত হবে তার বৈধতা, অনুমতিপত্রসহ যাবতীয় কাগজপত্র উপস্থাপন করতে বলা হয়েছে। 

মালভিটাপাড়ায় বসবাসরত হাজী আব্দুল মান্নান বলেন, যেসব যন্ত্রপাতি এনজিও সংস্থাগুলো রোহিঙ্গাদের সরবরাহ করছে তা স্থানীয়দের জন্য মারাত্বক হুমকির। 

তবে এ বিষয়ে শেডের সম্বন্বয়কারী আবু সরোয়ার জানান, দীর্ঘদিন ধরে তিনি শেডে কাজ করছেন। পর্যটন শহর ইনানীতে বাস্তবায়নাধীন জাতীয় উদ্যানের কাজ করে ইনানীর ধ্বংসাত্বক বনাঞ্চলকে দৃশ্যমান করে তুলেছেন।

তিনি বলেন, তাদের আওতাধীন হাজার হাজার পরিবার আর্থিক সুবিধা ভোগ করে বর্তমানে স্বচ্ছল জীবন যাপন করছে। এসব হত দরিদ্রদের কৃষি, ক্ষেত খামার কাজে ব্যবহার করার জন্য এনজিও সংস্থা আইএমও তাদের এসব যন্ত্রপাতি সরবরাহ করেছে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জামান চৌধুরী জানান, ইতোপূর্বেও একটি এনজিও সংস্থা থেকে একই ধরণের যন্ত্রপাতি উদ্ধার করা হয়েছে। দুপুরে এনজিও সংস্থা শেড থেকে যেসব অস্ত্র ও লোহার তৈরি সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়েছে তা নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *