চট্টগ্রাম, , সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯

মিজবাউল হক চকরিয়া অফিস

চুরির মামলায় শিক্ষক ও সাংবাদিকের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-০৭ ২২:৫৫:২৫ || আপডেট: ২০১৯-০৯-০৭ ২২:৫৫:৩১


চকরিয়া অফিস:
আলীকদম অসথি ত্রিপুরাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা জয়নাব আরা বেগম ও স্থানীয় সাংবাদিক মমতাজ উদ্দিনসহ ৬জনের বিরুদ্ধে একটি চুরি মামলায় চার্জ গঠনের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। তাদের বিরুদ্ধে গত বছরের ১০জানুয়ারি শিক্ষক শফিকুল ইসলামের ঘরের মালামাল লুট ও চুরির অভিযোগ আনা হয়। গত ৫ সেপ্টেম্বর বান্দরবান অতিরিক্ত চীফ জুড়িসিয়াল ম্যাজিট্রেটের আদালতে তাদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠনের নির্দেশ দেয়া হয়। মামলার অভিযোগে জানা যায়, ২০১৮ সালের ১০জানুয়ারি আলীকদম অসথি ত্রিপুরাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জয়নাব আরা বেগম নেতৃত্বে ৫-৬ জন সহযোগি নিয়ে পানবাজারস্থ মাষ্টার শফিকুল ইসলামের বসতঘরে ঢুকে ব্যাপক লুটপাট ও চুরির অভিযোগ আনা হয়। ঘটনারদিন বাদিতে ওই শিক্ষক না থাকার সুযোগে প্রধান শিক্ষিকা জয়নাব তার সহযোগি নিয়ে চট্টমেট্রো-চ-১১২৫৪২ একটি নোহা গাড়ি নিয়ে মাষ্টার শফিকুল ইসলামের বসতঘরে প্রবেশ করে। এসময় বাড়িতে রক্ষিত ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা, সাড়ে ৭ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও ২টি ল্যাপটপ লুট করে। মামলার বাদি মাষ্টার শফিকুল ইসলাম জানান, ঘরে থাকা ভিটার মূল দলিল, বোমাং রাজা কর্তৃক স্থায়ী বাসিন্দা সনদ, শিক্ষাগত যোগ্যতার সকল সনদ, শিক্ষকতার নিয়োগ, যোগদান ও সি.এন.এড সনদ, ছোট ভাই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মনিরুল ইসলামের ডি.পি.এড সনদ ও তাহার বিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট, লাগেজ ও ব্যাগ ভর্তি ব্যবহারিত জিনিসপত্র নিয়ে যান। লুট ও চুরির ঘটনায় ১৪/০৩/২০১৮ মাষ্টার শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে বান্দরবান চীফ জুড়িসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। যার ডায়েরি নং-০১/১৮। অভিযোগে প্রধান শিক্ষিকা জয়নাব আরা বেগম ছাড়াও মমতাজ উদ্দিন (৪০), মো: শফি উল্লাহ (৩৩), মো: আবদুল্লাহ (৩৭), মোক্তার আহমদ ও রেজাউল করিমকে আসামী করা হয়। পরবর্তী সময়ে অভিযোগটি অধিকতর তদন্তের পর ২৫/০৩/২০১৮ সি.আর ৩৯/১৮ মামলায় রূপান্তরিত হয়। ৫ সেপ্টেম্বর উভয়পক্ষের আইনজীবীদের যুক্তি-তর্ক পর্যালোচনা করে বাদী-বিবাদীগণের উপস্থিতিতে আদালতের হাকিম প্রধান শিক্ষিকা ও সাংবাদিক মমতাজ উদ্দিনের বিরুদ্ধে চার্জ গঠনের নির্দেশ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *