চট্টগ্রাম, , সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯

রাঙ্গুনিয়ায় মন্দিরে প্রতিমা ভাংচুরের অভিযোগ

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-১৫ ১৯:৩৫:৫২ || আপডেট: ২০১৯-০৯-১৫ ১৯:৩৬:০০

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি :
রাঙ্গুনিয়ায় রাতের আঁধারে সনাতন সম্প্রদায়ের মন্দিরে ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাত সাড়ে ১২ টার দিকে দক্ষিণ রাজা নগর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড, পশ্চিম নিশ্চিন্তাপুর গ্রামে দুর্বৃত্তরা কর্মকার পাড়া সার্বজনীন দূর্গা মন্দিরের ফটকের তালা ভেঙ্গে দুইটি প্রতিমা, দানবাক্স ও অন্যান্য জিনিসপত্র ভাংচুর করে। এই ঘটনার বিষয়ে থানায় লিখিত জানিয়েছেন দক্ষিণ রাজা নগর কর্মকার পাড়া মহাশশ্মান পরিচালনা কমিটির সভাপতি দিলীপ কর্মকার। তিনি বলেন, অভিযুক্তদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে মন্দিরের পাশে শশ্মানের জায়গা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এই নিয়ে একটি মামলা চলছে। শশ্মানের জায়গা দখলের জন্য এই ঘটনা ঘটিয়েছে তাঁরা। রাতের আঁধারে মন্দিরে ঢুকে বিশ্বকর্মা ও স্বরস্বতী প্রতিমা, দানবাক্স ও আলমিরাতে দূর্গাপূজার জন্য রাখা টাকা ও প্রতিমার গায়ের স্বর্নালংকার নিয়ে যায়।”
উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের প্রধান উপদেষ্ঠা নির্মল কান্তি দাশ ও সভাপতি বিভূতি ভূষন সেন বলেন, “ মন্দিরে ভাংচুরের ঘটনায় সনাতন সম্প্রদায়ের লোকজনের মনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। কিছুদিন পর দূর্গাপূজা শুরু হবে। দূর্গাপূজা পালন করতে পারব কিনা সংশয়ে আছি। আমরা ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার করে বিচার দাবি করছি। ”
রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ মো. আহসানুল কাদের ভুঞা বলেন “মন্দিরের ভাংচুরের ঘটনার অভিযোগ পেয়েছি। মন্দিরের পাশে শশ্মানের জায়গা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে জেনেছি। ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে। ”
এদিকে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়েছেন রাঙ্গুনিয়া উপজেলা পূজা পরিষদ , জন্মাষ্টমী পরিষদ, জাগো হিন্দু পরিষদ, শারদাঞ্জলী ফোরাম। এক বিবৃতিতে উপজেলা পূজা পরিষদের প্রধান উপদেষ্ঠা নির্মল কান্তি দাশ, সভাপতি বিভূতি ভূষণ সেন, সাধারণ সম্পাদক দিলীপ দাশ, রাঙ্গুনিয়া জন্মাষ্টমী উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি বিজয় কুমার সেন ও সাধারণ সম্পাদক ত্রিদীপ কুমার সাহা ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *