চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯

নীরব জসীম ডেস্ক কন্ট্রিবিউটর

শিশুকে হত্যার পর মাটিতে পুঁতে রাখে সৎ মা

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-১৮ ০০:২৪:৪৭ || আপডেট: ২০১৯-০৯-১৮ ০০:৪০:৫১

নিউজ ডেস্ক :

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে নিখোঁজের দুই দিন পর মাটি চাপা দিয়ে রাখা সিয়াম মোল্লা নামে এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে সৎ মা ফেরদাউসি বেগমকে (২৫) পুলিশ গ্রেফতর করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার দুপুরে শিশুটির মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। নিহত সিয়াম মোরেলগঞ্জ উপজেলার হোগলাবুনিয়া ইউপির বদনীভাঙা গ্রামের মিরাজ মোল্লার ছেলে।

নিহত শিশুর বাবা মিরাজ মোল্লা বলেন, বনিবনা না হওয়ায় তিন বছর আগে প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ হলে ফেরদাউসি বেগমকে তিনি বিয়ে করেন। প্রথম ঘরের সন্তান সিয়াম আমাদের সঙ্গেই থাকতো। এই সন্তানটিকে  দ্বিতীয় স্ত্রী মেনে নিতে না পারায় প্রায়ই ঝগড়া বিবাদ হতো।

দুই দিন আগে বিকেলে ছেলে সিয়াম হঠাৎ করে নিখোঁজ হয়। স্ত্রীর কাছে ছেলে কোথায় জানতে চাইলে সে বলে তাকে অপরিচিত এক নারীর সঙ্গে কথা বলতে দেখেছিলাম সে মনে হয় ধরে নিয়ে গেছে। এরপর ছেলে নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি পুলিশকে জানাই।

বাগেরহাটের এএসপি রিয়াজুল ইসলাম বলেন, রোববার বিকেল থেকে সিয়াম নিখোঁজ ছিল। পরিবারের সদস্যরা অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে না পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ সেখানে গিয়ে নিখোঁজ শিশুটির সৎ মা ফেরদাউসিকে জিজ্ঞাসবাদ করলে তার কথা অসংলগ্ন মনে হয়।

এক পর্যায়ে শিশু সিয়ামের সৎ মা তাকে প্রথমে মাথায় আঘাত করে মুখের ভেতরে কাপড় চেপে শ্বাসরোধে হত্যা করে। এরপর বাড়ির ল্যাট্রিনের পাশে মাটি খুঁড়ে লাশ পুঁতে রাখে বলে পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি স্বীকার করেছেন। তার দেয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাটে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *