চট্টগ্রাম, , রোববার, ৭ মার্চ ২০২১

admin

ফটিকছড়িতে ইউনিয়ন পরিষদে দুর্বৃত্তদের হামলা, আহত ৩

প্রকাশ: ২০২০-০৫-১৩ ০০:১৩:২৪ || আপডেট: ২০২০-০৫-১৩ ০০:১৩:২৮

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি■
ফটিকছড়ির বাগান বাজার ইউনিয়ন পরিষদে একদল দুর্বৃত্ত হামলা চালিয়ে ইউপি অফিসে ভাংচুর ও অফিসে রক্ষিত ত্রানের চাল তছনছ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় ত্রাণের চালের বস্তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তছনছ করা হয়েছে। এ ঘটনায় দুই গ্রাম পুলিশ ও এক দফাদারসহ তিনজন আহত হয়েছে। আহতদের পার্শ্ববর্তী রামগড় সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার ( ১২ মে ) সকাল সাড়ে দশটার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে একটি ট্রাকে করে ও কয়েকটি মোটর সাইকেল যোগে প্রায় ৫০ জনের একটি দুর্বৃত্ত দল অতর্কিতে মিছিল নিয়ে এসে এ হামলা করেছে বলে জানাগেছে। হামলায় গোলাম মাওলা দুলু (৪৫)’ আক্তার হোসেন (৫০) দফাদার নুরুল আলম নুরু (৫৫) গুরুতর আহত হন। হামলাকারীরা রাম দা, লাঠি নিয়ে প্রায় ১৫ মিনিট সময় ধরে উক্ত অফিসে তান্ডব চালিয়ে আবার পালিয়ে যায়।

তারা, সচিবের রুমের টেবিল ফ্যান, বিদ্যুত বোর্ড, কম্পিউটার, চেয়ারম্যানের রুমে বঙ্গবন্ধুর ছবি, প্রধানমন্ত্রীর ছবি ও নৌকার শো-পিচ এবং অফিসের সামনে রাখা চারটি মোটর সাইকেল ভাংচুর করেছে। ঘটনার খবর পেয়ে দুপুরে ফটিকছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সায়েদুল আরেফিন, ভুজপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ আবদুল্লাহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

উক্ত ইউপি সচিব বখতিয়ার উদ্দিন বলেন, ভিজিডি কার্ডের চাল বিতরণ করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম।এসময় ৫০, ৬০ জন লোক ট্রাকে করে এসে চালের বস্তা তছনছ করে ব্যাপক ভাংচুর করেছে।

এব্যাপারে উক্ত ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল মন্নান ভুঁইয়া বলেন, বিএনপি সমর্থিত লোকজন এখানে হামলা করেছে। বিএনপির সরকারের আমলেও আমরা নির্যাতিত। এখনো নির্যাতিত হচ্ছি বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এব্যাপারে বাগান বাজার ইউপি চেয়ারম্যান মো.রুস্তম আলী বলেন, আমার পরিষদে অর্তকিতে হামলা করেছে। যা আমার কল্পনায়ও ছিল না। আমরা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি। এঘটনার ব্যাপারে ভুজপুর থানার দাঁতমারা তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোহাম্মদ সরওয়ার্দী সরোয়ার বলেন, যারা হামলা করেছে তাদের নাম ঠিকানা দিয়ে মামলা হলে আমরা আসামি গ্রেপ্তারে মাঠে নামবো। এ ঘটনা কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এব্যাপারে ফটিকছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.সায়েদুল আরেফিনের নিকট জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এব্যাপারে উক্ত ইউপি সচিবকে বাদী হয়ে মামলা করার ন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে এবং ঘটনার সাথে যে বা যারা জড়িত থাকুক তাদের আইনের আওতায় এনে বিচার করা হবে বলে তিনি ন্তব্য করেন। এবং ঘটনাটি তিনি ফটিকছড়ির সাংস আলহাজ সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী সহ প্রশাসনের উর্ধতন মহলকে অবহিত করা হয়েছে বলে জানান।

উল্লেখ্য স্থানীয় চেয়ারম্যানের সাথে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লোকজন এ হামলা করেছে বলে একটি সুত্র জানিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *