চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ২০ মে ২০২২

admin

মৃত্যুর ৩১ বছর পর জাতীয় সম্মাননা!

প্রকাশ: ২০২২-০২-০৩ ২০:৩৬:৩৫ || আপডেট: ২০২২-০২-০৩ ২০:৩৬:৩৮

ডেস্ক রিপোর্ট| মৃত্যুর ৩১ বছর পর রাষ্ট্র সম্মান জানাল গীতিকার বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম বাবুকে। দিচ্ছে একুশে পদক। এবার জাতীয় ক্ষেত্রে অনন্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে এবার ২৪ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি পাচ্ছেন একুশে পদক।

বৃহস্পতিবার সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে তাদের নাম ঘোষণা করা হয়। এ তালিকায় দেখা যায় এই গীতিকারের নাম।

‘সবকটা জানালা খুলে দাও না’,একটি বাংলাদেশ তুমি জাগ্রত জনতার’,‘আমায় গেঁথে দাও না মাগো’,‘দুই ভুবনের দুই বাসিন্দা’,‘পৃথিবীতে প্রেম বলে কিছু নেই’, ‘ডাকে পাখি খোল আঁখি’, ‘কাল সারারাত ছিল স্বপ্নের রাত’, ‘আমার গরুর গাড়ীতে বউ সাজিয়ে’, ‘কতো যে তোমাকে বেসেছি ভালো’,‘কাঠ পুড়লে কয়লা হয়’’— কালজয়ী এসব গানের গীতিকার বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম বাবু।

এই প্রজন্মের শ্রোতাদের কাছেও গানগুলো জনপ্রিয়। দেশের পথে প্রান্তরে গানগুলো এখনও বাজে। গুণগুনিয়ে গায় মানুষ। কিন্তু গান জনপ্রিয় হলেও গানের স্রষ্টার নাম জানেন না অনেকেই। নাম জানলেও গানের গীতিকার যে উনি সেটা হয়তো জানে না। কালজয়ী গানের এই গীতিকার ১৯৯০ সালে ১৪ সেপ্টেম্বর চলে গেছেন না-ফেরার দেশে। মৃত্যুবার্ষিকী বা জন্মবার্ষিকীতেও স্বরণ করা হয় না তাকে।

প্রয়াত হওয়ার ৩১ বছর পর এই সম্মান জানানোর বিষয়ে কথা হয় গীতিকারের স্ত্রী শাহীন আক্তারের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘গতকাল আমরা জানতে পারি। ভাবতে ভালো লাগছে যে অনেক বছর পর হলেও অবশেষে তিনি স্বীকৃতি পেলেন। আজ আমাদের জন্য বিশেষ স্মরণীয় দিন। তিনি থাকলে হয়তো আরও বেশি খুশি হতেন।’

১৯৪৯ সালের ১৭ জুলাই জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জের চরনগর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন নজরুল ইসলাম বাবু। মাত্র ৪১ বছর বয়সে চলে যান না ফেরার দেশে। তিনি চলে গেলেও তার সৃষ্টি কালোত্তীর্ণ করে রেখেছেন তাকে। সকাল-সন্ধ্যায় গানে ফিরে আসেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *