চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২

admin

পটিয়ার পাহাড়ি ঢলে ঝুঁকির মুখে খরনা: ফসলী জমি ও মৎস্য চাষের ক্ষতি

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-২৫ ২২:৫৮:৩৪ || আপডেট: ২০১৮-০৭-২৫ ২২:৫৮:৩৪

আবদুল হাকিম রানা, বীর কন্ঠ : 

পটিয়ায় গত দুই দিনের ভারী বর্ষণে খরনা খাল দিয়ে পাহাড়ি ঢলের পানি নেমে ফসলী জমি ও মৎস্য চাষ এবং গাছ বাগানের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে। এতে এলাকাবাসী খালের উভয় পাশে ভাঙন সৃষ্টি হওয়ায় ঝুঁকির মুখে রয়েছে। তারা খালের উভয় পাশে বেড়িবাঁধ ও ব্লক বসানোর মাধ্যমে জনগণের জানমালের নিরাপত্তা বিধানের জন্য পটিয়ার সাংসদ সহ সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

জানা যায়, গত দুই দিনের বিরামহীন বর্ষণে পটিয়া উপজেলার খরনা ইউনিয়নের পূর্বাঞ্চল থেকে গড়িয়ে পড়া ঢলের পানি খরনা খাল নিম্নাঞ্চলে প্রবাহিত হয়। বর্তমানে খালটির বিভিন্ন অংশে ভরাটের কারণে পানি ফুলে ফেফে পুরো ইউনিয়নে ছড়িয়ে পড়ে। এতে ইউনিয়নের কয়েকটি ওয়ার্ড প্লাবিত হয়। বিশেষ করে ৫নং ওয়ার্ডের নারায়ন মেম্বারের বাড়ীর পাশে খরনা খালের  মহাশ্মশান অংশ থেকে খরনা ব্রীজ পর্যন্ত ঘর বাড়ি, বিভিন্ন ফসলী জমি ও গাছ বাগান খালের পানিতে বর্তমানে বিলীন হয়ে ব্যাপক ক্ষতির মুখে রয়েছে বলে স্থানীয়র জানান। গতকাল এ খালের ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেন খরনা ইউপি চেয়ারম্যান মাহাবুবর রহমান।

এসময় তার সাথে ছিলেন খরনা শ্রী শ্রী জ্বালাকুমারী মায়ের মন্দির পরিচালনা কমিটির সম্পাদক প্রিয়তোষ সরকার রাসু সহ এলাকা গণমান্য ব্যক্তিবর্গ। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন অমুল্য সরকার মনীন্দ্র সেন, গোপাল সেন, সাধন সরকার, সমীর সেন, সুজন সেন, বলরাম সরকার ও রাখাল সরকার প্রমুখ। তারা খালের বর্তমান করাল গ্রাসে ঝুঁকির মুখে থাকা এলাকাগুলো রক্ষায় পটিয়ার সাংসদ আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরী সহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *