চট্টগ্রাম, , রোববার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২

admin

স্থবিরতা কাটিয়ে জনবান্ধব হবে : খাগড়াছড়ির প্রশাস মোঃ শহিদুল ইসলাম

প্রকাশ: ২০১৮-০৮-১৬ ২১:৩৭:০১ || আপডেট: ২০১৮-০৮-১৬ ২১:৩৭:৩৪

শংকর চৌধুরী,খাগড়াছড়ি॥

জনগণের সেবার জন্যই প্রশাসন। সরকারি সেবা প্রত্যন্ত অঞ্চলের জনসাধারণের দোরগোড়ায় পৌছে দিতে নির্দেশনা রয়েছে। অতীতের স্থবিরতা কাটিয়ে জনবান্ধব হবে প্রশাসন। এই মানসিকতা নিয়ে কাজ করবে জেলা প্রশাসন। এমন মন্তব্য করে প্রশাসনিক কার্যক্রমে গতিশীলতা আনতে সংবাদকর্মীদের সহযোগিতা চাইলেন খাগড়াছড়ির নবাগত জেলা প্রশাসক মোঃ শহিদুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (১৬ আগস্ট) বিকেলে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় কালে তিনি এই কথা বলেন।

 

সভায় খাগড়াছড়ি প্রেস ক্লাব সভাপতি জিতেন বড়ুয়া,সহ-সভাতি জহরুল আলম, সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের মুহাম্মদ, খাগড়াছড়ি সাংবাদিক ইউনিয়ন (কেইউজে) এর সভাপতি নুরুল আজম,সাধারণ সম্পাদক কানন আচার্য,দৈনিক অরণ্যবার্তা সম্পাদক চৌধুরী আতাউর রহমান রানা, খাগড়াছড়ি প্রতিদিনের সম্পাদক এ্যাডভোকেট জসীম উদ্দিন মজুমদার ও সাংবাদিক আজিম-উল-হক একুশে টিভির প্রতিনিধি চিংমেপ্র“ মারমা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

প্রশাসনকে সবধরণের সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ পেশাগত দায়িত্ব পালনে নবাগত জেলা প্রশাসকের ইতিবাচক ভূমিকা প্রত্যাশা করেন। এবং এই জেলার আইশৃঙ্খলা,ভূমি জটিলতা, হাউজবিল্ডিং ঋণসহ বিভিন্ন সরকারি কাজে দীর্ঘসূত্রিতার কথা তুলে ধরে, এসব সমাধানে নবাগত জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এসময় নবাগত জেলা প্রশাসক মনযোগ সহকারে সাংবাদিকদের বক্তব্য শুনেন এবং গণমাধ্যমকে তার কাজের স্বচ্ছতা জবাবদিহিতা ও কাজে গতি বাড়ানোর মাধ্যম বলে মন্তব্য করে, এসব বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দেন। খাগড়াছড়ির নবাগত জেলা প্রশাসক মোঃ শহিদুল ইসলাম।

মতবিনিময় সভায় খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এটিম কাউছার হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো: ছাহেল তস্তরী, খাগড়াছড়ি টেলিভিশন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনে সাধারণ সম্পাদক এইচ এম প্রফুল্ল, দৈনিক সমকাল প্রতিনিধি প্রদীপ চৌধুরী,ডিবিসি ও ডেইলী স্টার প্রতিনিধি সৈকত দেওয়ান, কালেরকন্ঠ ও এটিএন বাংলার প্রতিনিধি আবু দাউদ,মাটিরাঙা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান ভুইয়া, যুগান্তর প্রতিনিধি সমির মল্লিক,প্রথম আলো প্রতিনিধি জয়ন্তী দেওয়ান ছাড়াও জেলায় কর্মরত প্রিন্ট,টেলিভিশন ও অনলাইন গণমাধ্যমের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *