চট্টগ্রাম, , রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০

admin

এমসি কলেজে গণধর্ষণ: প্রধান আসামি সাইফুল গ্রেপ্তার

প্রকাশ: ২০২০-০৯-২৭ ১৩:৪৭:৫২ || আপডেট: ২০২০-০৯-২৭ ১৩:৪৭:৫৮

সিলেট এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে এক নারীকে গণধর্ষ‌ণের ঘটনায় করা মামলার আসামি সাইফুর রহমানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রবিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে সুনামগ‌ঞ্জের ছাতক থে‌কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার সাইফুর রহমান (২৮) সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার চান্দাইপাড়া গ্রামের তাহিদ মিয়ার ছেলে। সে এমসি কলেজের ৫ম ব্লক হোস্টেলে থাকতো।

ছাতক থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। রবিবার সকালে ছাতক খেয়াঘাট সংলগ্ন এলাকা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ছাতক থানার এসআই হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ তা‌কে গ্রেপ্তার করে।
সি‌লেট মহানগর পু‌লি‌শের কেউ এখনও গ্রেপ্তারের তথ্য জা‌নেন না ব‌লে জানিয়েছেন।

এর আগে শনিবার ভোররাতে সাইফুর রহমানের কক্ষ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র ও রামদা, চাকু ও জিআই পাইপসহ বিভিন্ন দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

উল্লেখ্য, শুক্রবার সন্ধ্যায় স্বামী-স্ত্রী এমসি কলেজে বেড়াতে যান। এ সময় কলেজ ক্যাম্পাস থেকে ৫-৬ জন জোরপূর্বক কলেজের ছাত্রাবাসে নিয়ে যায় দম্পতিকে। সেখানে একটি কক্ষে স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে গণধর্ষণ করে তারা। খবর পেয়ে গৃহবধূকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে শাহপরাণ থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে নগরীর শাহপরাণ থানায় ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। তবে এজাহারে ছয় আসামির নাম রয়েছে, তিনজন অজ্ঞাতপরিচয় আসামি রয়েছে। নাম থাকা আসামিদের ছয়জনই ছাত্রলীগের কর্মী হিসেবে পরিচিত। তারা হলেন- সাইফুর রহমান, মাহবুবুর রহমান রনি, তারেক, অর্জুন লঙ্কর, রবিউল ইসলাম ও মাহফুজুর রহমান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *