চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

admin

রোহিঙ্গা গণহত্যা বন্ধের দাবিতে সাংবাদিক ও শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

প্রকাশ: ২০১৭-০৯-১০ ২০:১০:৫৩ || আপডেট: ২০১৭-০৯-১০ ২০:১১:৪০

বীর কন্ঠ ডেস্ক:  মিয়ানমারে রাখাইনে রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে গণহত্যা বন্ধ ও বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দিয়ে নিজ দেশে ফিরিয়ে নেয়ার দাবিতে মানববন্ধন করেছে সাংবাদিক ও শিক্ষার্থীরা। রাজধানীর গুলশান-২ নম্বর সার্কেলে ‘স্টপ জেনোসাইড ইন মিয়ানমার’, ‘সেভ রোহিঙ্গা পিপল’, ‘টেইক ব্যাক রোহিঙ্গা’ স্লোগানে সম্বলিত ব্যানার নিয়ে মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন সাংবাদিক ও শিক্ষার্থীরা। তারা স্লোগান স্লোগানে রোহিঙ্গাদের ওপর চলমান নির্যাতন ও হত্যাযজ্ঞের প্রতিবাদ জানান। পরে সাংবাদিক ও শিক্ষার্থীদের পাঁচজন প্রতিনিধি মিয়ানমার দূতাবাসের ফটকে গিয়ে একটি প্রতিবাদলিপি প্রদান করে। 

 

সাংবাদিক মুক্তাদির রশীদ রোমিও জানান, দেশের সচেতন নাগরিক হিসেবে আমরা মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর চলমান নির্যাতন-নিপীড়নের প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমরা চাই মিয়ানমারের গনহত্যা এই মুহুর্তে বন্ধ হোক এবং রোহিঙ্গাদের নিজেদের ভূমিতে নিরাপদে ফেরত নিতে হবে। আমরা বিশ্বাস করি প্রতিবেশীকে বিপদে রেখে, মিয়ানমারের উন্নয়ন টেকসই হবে না। মিয়ানমান দূতাবাসে দেয়া প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়েছেÑ মিয়ানমারে সংগঠিত নৃশংসতা এবং মানবিক বিপর্যয়ের কারণে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে প্রবেশ করছে। এটি বাংলাদেশের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি।

 

তাঁরা মিয়ানমার সরকারকে রোহিঙ্গা নাগরিকদের হত্যা বন্ধ করতে এবং বর্তমান পরিস্থিতির আশু সমাধানের জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। সাংবাদিক কাফি কামাল বলেন, মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর চলমান নির্যাতন-নিপীড়ন ও হত্যাযজ্ঞ যে কোন বিবেচনায় অত্যন্ত অমানবিক। এ নির্যাতন ও গণহত্যা বন্ধ করতে হবে। রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার ব্যাপারে বাংলাদেশ সরকার ও দেশের জনগণ এখন পর্যন্ত মানবতাকেই প্রাধান্য দিচ্ছে। কিন্তু আন্তর্জাতিক মহলকে বিবেচনা করতে হবে, জনসংখ্যাবহুল বাংলাদেশের জন্য এটা নানামাত্রিক সংকট সৃষ্টি করতে পারে। তাই জাতিসংঘের অধীনে মিয়ানমারে একটি নিরাপদ জোন করে রোহিঙ্গাদের সেদেশে ফিরিয়ে নিতে হবে। প্রতিবাদী মানববন্ধনে সাংবাদিক সারোয়ার আলম, জাহাঙ্গীর আলম, আহমেদ আতিক, এমএম বাদশা, ফয়সাল আকবর, রোকনুজ্জামান পিয়াস, হাসনাইন ইমতিয়াজ, রুদ্র মিজান ও হোসাইন তারেকসহ অনেকেই অংশ নেন।

 

সূত্র – মানবজমিন

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *