চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

admin

সাতকানিয়া-বাঁশখালী সড়ক বেহাল দশা 

প্রকাশ: ২০১৭-০৯-১৫ ০৬:২০:৪৪ || আপডেট: ২০১৭-০৯-১৫ ০৬:২০:৪৪

দিদারুল আলম, সাতকানিয়া : মানহীন নির্মাণ কাজ, অপরিকল্পিত যানবাহন চলাচল ও প্রয়োজনীয় সংস্কারের অভাবে সাতকানিয়া উপজেলার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক সাতকানিয়া-বাঁশখালীর প্রধান সড়কটি পায়ে হেঁটে কিংবা যানবাহনযোগে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়ছে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা পড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ দুই উপজেলার জনসাধারণ।

 

প্রায় ২০ কিলোমিটার পাকা সড়কের হাজারও স্থানে দীর্ঘদিন যাবত্ সংস্কার না করার কারণে ও গত বর্ষা মৌসুমে অতি বর্ষণে পাথর, ইট, সুরকি, ও বিটুমিন ওঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সাতকানিয়া পৌর এলাকা, কাঞ্চনা, রামপুর, এওচিয়া,  সোনাকানিয়া, মাদার্শা ইউনিয়নের জনসাধারণ ছাড়াও বাঁশখালী উপজেলা ও আনোয়ারা উপজেলার লক্ষ লক্ষ জনগণ সড়ক দুর্ঘটনার আতঙ্ক নিয়ে চলাচল করছেন। চট্টগ্রাম শহর হতে বাঁশখালীর উপর দিয়ে সাতকানিয়ায় যাতায়াতের  প্রধান মাধ্যম এ সড়কটি। সড়কে ঝুঁকি নিয়ে চলছে শত শত ছোট-বড় যানবাহন। যাতায়াতে দুর্ভোগে পড়ছে সাতকানিয়া সরকারি কলেজ, সাতকানিয়া মহিলা কলেজ, বাঁশখালী ডিগ্রী কলেজ, বাঁশখালী আলাওল কলেজ, দক্ষিণ  কাঞ্চনা উচ্চ বিদ্যালয়ের হাজারো শিক্ষার্থী।

 

প্রতিদিন এ সড়ক দিয়ে এলাকার বিভিন্ন ধরনের শাকসবজি পাইকাররা চট্টগ্রাম শহরে নিয়ে যায়। অথচ এ সড়কটির বেহাল দশার কারণে প্রতিনিয়ত ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে লক্ষ লক্ষ জনগণকে। ১৫ মিনিটের রাস্তা পার হতে সময় লাগে একঘণ্টা । প্রতিদিনই রাস্তার মধ্যে বিকল হচ্ছে ছোট-বড় যানবাহন। সড়কটির দুরবস্থার কারণে অসুস্থ রোগীদের জরুরী চিকিত্সা সেবা ব্যাহত হচ্ছে।

 

‘প্রতিদিন মোটরসাইকেল নিয়ে মাদরাসায় আসা-যাওয়া করতে আমার মেরুদণ্ডে ব্যথা হয়ে গেছে’— জানান সাতকানিয়া উপজেলার কাঞ্চনা আনোয়ারুল উলুম আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আবদুল মন্নান শামসী। স্থানীয় লোকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রতিদিন এ সড়কদিয়ে ইটবাহী গাড়ী, গাছভর্তি ট্রাক,বালুবাহী ট্রাক, যাতায়াতের কারণে ও প্রয়োজনীয় সংস্কারের অভাবে সড়কে এসব গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। মার্দশা দেওদীঘি এলাকার মোহাম্মদ হক ,সাতকানিয়া সদরের গোলাম ফেরদৌস রুবেল সওদাগর জানান, গরমকালে রাস্তার গর্তের ধূলায় চোখমুখ বন্ধ হয়ে যায়- আর বর্ষার সময় সড়ক দিয়ে গাড়ি চলাচল করার সময় গর্তের জমে থাকা পানি ছিঠকে এসে পাশের দোকানের ভিতর পড়ে।

 

এ ব্যাপারে সাতকানিয়া উপজেলার কাঞ্চনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রমজান আলী ইত্তেফাককে জানান, উপজেলার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক সাতকানিয়া-বাঁশখালীর প্রধান সড়ক জনসাধারণ ও যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ার বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করেছি।

 

এ ব্যাপারে দোহাজারি সড়ক ও জনপথ বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম ইত্তেফাককে জানান, সড়কটি মেরামতের জন্য ইস্টিমিট ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। আগামী ডিসেম্বর-জানুয়ারির দিকে কাজ শুরু হতে পারে।

 

এ ব্যাপারে সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার সংসদ সদস্য প্রফেসর ড.আবু রেজা মোহাম্মদ নেজামুদ্দীন নদভী এমপি জানান,  ওই সড়ক মেরামতের জন্য প্রায় ৮০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে। শীঘ্রই মেরামতের কাজ শুরু হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *