চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

admin

পালিয়ে শেষ রক্ষা হলনা পাষন্ড পিতা ধর্ষক অাব্দুল মাবুদের: থানায়  মামলা দায়ের 

প্রকাশ: ২০১৭-১০-০৮ ০২:৩৩:০২ || আপডেট: ২০১৭-১০-০৮ ০২:৩৩:০২

বীর কন্ঠ ডেস্ক:  চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় নিজের ঔরসজাত ১৩ বছরের কন্যাকে একাধিকবার ধর্ষণ  করার অভিযোগে  পাষন্ড পিতা ধর্ষক অাব্দুল মাবুদ ( ৩০) কে অাটক করেছে থানা পুলিশ।

৭ অক্টোবর দুপুর ১ টার দিকে  নগরীর ডাবল মুরিং থানা এলাকা থেকে তাকে অাটক করা হয়। সে উপজেলার সদর ইউনিয়নের  দরবেশহাট শাহপীর পাড়ার মো: ওসমানের পুত্র। এ ব্যাপারে ভিকটিমের নানা লোহাগাড়া উজিরভিটা গুলমোহাম্মদ পাড়ার মৃত কাদের বকসুর পুত্র এয়াকুব অালী বাদী হয়ে ধর্ষক অাব্দুল মাবুদের বিরুদ্ধে থানায়  মামলা ( নং-১৪) দায়ের করেছেন।

 

এ ব্যাপারে লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শাহজাহান পিপিএম বার  জানান, পিতা কর্তৃক মেয়ে ধর্ষিত হওয়া এটি একটি পৃথিবীর সবচেয়ে নিকৃষ্টতম ও জগন্যতম  কাজ। ভিকটিমের নানার মাধ্যমে অভিযোগ পাওয়ার ৩ ঘন্টার মধ্যে দ্রুত অভিযান চালিয়ে  ধর্ষক অাব্দুল মাবুূদকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নগরীর ডাবল মুরিং থানা এলাকা থেকে অাটক করা হয়েছে। বর্তমানে ধর্ষক অাব্দুল মাবুদ থানা হেফাজতে রয়েছে  ।  তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন অাইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 

প্রশ্নের জবাবে পিতা কর্তৃক ধর্ষিত হওয়া   ভিকটিম বলেন, ৫ বছর অাগে তার মায়ের সাথে পিতা অাব্দুল মাবুদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এসময় গ্রাম্য সালিশী বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মাকে বাপের বাড়ী পাঠিয়ে দেয়া হয়  এবং অামরা ভাই- বোন দুজনকে  পিতা অাব্দুল মাবুদের কাছে রেখে দেয়া হয়। এদিকে বিবাহ বিচ্ছেদের কিছুদিন পরেই অাব্দুল মাবুদ ২য় বিবাহ করে। বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে ২য় স্ত্রীর সাথে অাব্দুল মাবুদের ঝগড়া হতো এবং ২য় স্ত্রী বারবার বাপের বাড়ী চলে যেত।

 

গত বছর মোস্তফা বেগম গার্লস স্কুলে  ৫ম শ্রেণীতে পড়া অবস্থায় পিতা অাব্দুল মাবুদ অামাকে স্কুল থেকে নামিয়ে নেয়। কিছুদিন অাগে অামার পিতা মাবুদের সাথে ২য় স্ত্রীর অাবারো ঝগড়া হয়। ঝগড়া হওয়ায় তিনি তার বাপের বাড়ী চলে যায়। এ সুযোগে তার পিতা মাবুদ তাকে জোরপূর্বক একাধিকবার ধর্ষণ করেছে। ঘটনার কথা সে তার দাদা-দাদীকে জানায়। কিন্তু দাদা-দাদী তার কথা বিশ্বাস না করে  কোন কিছু না করায় সে অনেক কষ্টে বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়।

 

এদিকে  ভিকটিমের নানা এয়াকুব অালী জানান, গত ৪ অক্টোবর বুধবার অামার নাতনী বাড়ী থেকে পালিয়ে অামার বাড়িতে অাসে। এসে কান্নাজড়িত কন্ঠে  সে তার উপর অাব্দুল মাবুদের পাশবিক নির্যাতনের কথা জানালে ঘটনা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর ধর্ষক অাব্দুল মাবুদ এলাকা থেকে পালিয়ে গিয়েছিল। থানায় মামলা করার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই লোহাগাড়া থানা পুলিশ ধর্ষক অাব্দুল মাবুদকে অাটক করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *