চট্টগ্রাম, , রোববার, ৯ মে ২০২১

নীরব জসীম ডেস্ক কন্ট্রিবিউটর

হাটহাজারীতে ঘুষ ঠেকাতে অভিনব পন্তা

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-০৩ ০০:৪৪:৫৮ || আপডেট: ২০১৯-০৭-০৩ ০০:৫১:০৯

নিউজ ডেস্ক : সরকারি অফিসে ঘুষ গ্রহণ বন্ধ করতে অভিনব পদক্ষেপ নিয়েছেন চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমিন। উপজেলার তিনটি সরকারি কার্যালয়ে তার উদ্যোগে সাঁটানো হয়েছে ‘ঘুষ বোর্ড’। সেবা পাওয়ার বিনিময়ে ঘুষ দিতে বাধ্য হলে ওই দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা বা কর্মচারীর তথ্য এই বোর্ডে লিখতে পারবেন নাগরিকরা।
সরকারি কার্যালয়ে ঘুষ বোর্ড স্থাপনের বিষয়ে জানতে চাইলে হাটহাজারীর ইউএনও রুহুল আমিন বলেন, ‘সরকারি অফিসে কর্মরত কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী আছেন যারা মনে করেন ঘুষ গ্রহণ করাটাই তাদের অধিকার। তাদের মুখোশ উন্মোচন করতে আমি এই উদ্যোগ নিয়েছি। কোনো নাগরিক সেবা গ্রহণ করতে এসে যদি কাউকে কোনো কর্মকর্তা বা কর্মচারীকে ঘুষ দিতে হয় তাহলে তিনি যাকে টাকা দিয়েছেন তার নাম পরিচয় এই বোর্ডে লিখে দিতে পারবেন।
ইউএনও জানান, এখন পর্যন্ত হাটহাজারী উপজেলার তিনটি কার্যালয়ে ঘুষ বোর্ড স্থাপন করা হয়েছে। গত শনিবার নিজ দফতর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রথম ঘুষ বোর্ড লাগান তিনি। এরপর সোমবার উপজেলার সদর ইউনিয়ন ভূমি অফিসে এটি স্থাপন করা হয়। সর্বশেষ গতকাল পৌরসভা কার্যালয়ে ঘুষ বোর্ড স্থাপন করা হয়।
রুহুল আমিন বলেন, আমার কার্যালয়ে প্রথমে ঘুষ বোর্ড স্থাপন করেছি। ইতোমধ্যে উপজেলার আরো দু’টি সরকারি কার্যালয়ে ঘুষ বোর্ড স্থাপন করা হয়েছে। ব্হৃস্পতিবার উপজেলা সমাজসেবা অফিসে এই ঘুষ বোর্ড স্থাপন করা হবে। ক্রমান্বয়ে উপজেলার সবগুলো অফিসে এই বোর্ড স্থাপন করা হবে।
এখন পর্যন্ত ঘুষ বোর্ডে কোনো অভিযোগ পেয়েছেন কি না এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, এখনো কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। সরকারি অফিসে ঘুষ প্রথা বন্ধ করতে হলে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যেমন এগিয়ে আসতে হবে, তেমনি নাগরিকদেরও এগিয়ে আসতে হবে।
উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মোজাহিদুল ইসলাম এ বিষয়ে বলেন, এটা একটা প্রশংসনীয় উদ্যোগ। ঘুষের লেনদেন একেবারে কমিয়ে না আনলেও এই উদ্যোগের মাধ্যমে মানুষ উপকৃত হবে। কর্মকর্তারাও ঘুষ নেয়ার আগে চিন্তা করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *